• প্রচ্ছদ » » আমরা যখন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি তখন হলগুলোতে শিবিরের টর্চার সেল ছিলো


আমরা যখন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি তখন হলগুলোতে শিবিরের টর্চার সেল ছিলো

আমাদের নতুন সময় : 14/10/2019

সওগাত আলী সাগর

বুয়েটে টর্চার সেল, ছাত্র নির্যাতনের নানা বীভৎসতার কথা শুনছি ক’দিন ধরে। আবরারকে খুন করার পর থেকে এসব তথ্য আসছে। কিন্তু এর আগে এসব তথ্য কোনো মিডিয়ায় আসেনি কেন? বুয়েটে কি বিভিন্ন পত্রিকা-টেলিভিশনের প্রতিনিধি নেই? তাদের কানে কখনোই এসব আসেনি? খোদ রাজধানী শহরে এমন বীভৎস নির্যাতনের ঘটনা ঘটে যাচ্ছেÑ অথচ আইনশৃঙ্খলা রক্ষীবাহিনী, প্রশাসন, সরকার এমনকি মিডিয়াÑ কারও কাছেই এগুলো গুরুত্ব পায়নি। এ কেমন কথা।আমরা যখন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি (১৯৮৩ পরবর্তী সময়ে) হলগুলোতে শিবিরের টর্চার সেল ছিলো। বিভিন্ন হলের নির্দিষ্ট কতোগুলো রুমে ডেকে নিয়ে প্রগতিশীল রাজনৈতিক-সাংস্কৃতিক কর্মীদের নির্যাতন করা হতো। নির্যাতনের পর বলে দেয়া হতোÑ যেন এই নির্যাতনের কথা প্রকাশ না করা হয়। তখন এতো মিডিয়া ছিলো না। শহর থেকে দূরে গ্রামে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। ক্যাম্পাসে রিপোর্টারও তেমন ছিলো না। তবু প্রায় প্রতিটি নির্যাতনের ঘটনাই পত্রিকায় ছাপা হতো। গভীর রাতে অতি সঙ্গোপনে যে নির্যাতনটি চালানো হতোÑ সেটির খবরও চলে আসতো চট্টগ্রাম শহরের বাংলা হোটেলে, জাফর ওয়াজেদের কাছে। জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক জাফর ওয়াজেদ তখন দৈনিক সংবাদের হয়ে চট্টগ্রামে কাজ করেন। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে শিবিরের গোপন কিংবা প্রকাশ্য প্রতিটি নির্যাতনের খবরই জাফর ওয়াজেদ জেনে যেতেন। তিনি অত্যন্ত যতœ করে সেগুলো তুলে ধরতেন দৈনিক সংবাদের পাতায়। জাফর ওয়াজেদ তখন হয়ে ওঠেছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্বদ্যিালয়ের নির্যাতিত শিক্ষার্থীদের আপনজন। বুয়েটের শিক্ষার্থীদের জন্য ঢাকা শহরে কি একজনও জাফর ওয়াজেদ ছিলো না। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]