• প্রচ্ছদ » » উপক‚লীয় এলাকায় রাডার স্থাপন বিতর্ক


উপক‚লীয় এলাকায় রাডার স্থাপন বিতর্ক

আমাদের নতুন সময় : 14/10/2019

মোহাম্মদ এ আরাফাত

বাংলাদেশের উপক‚লীয় এলাকায় রাডার স্থাপন নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিমূলক তথ্য ছড়ানো হয়েছে। কিছু মানুষ এতে বিভ্রান্তও হয়েছে। এর কারণ হলো বেশিরভাগ মানুষ বাংলাদেশ-ভারত যৌথ ঘোষণাটি পড়েই দেখেনি। বেশিরভাগ মানুষ এই বিষয় নিয়ে অপপ্রচারমূলক লেখা এবং খবরগুলো বেশি দেখেছে। এর কারণ হলো বাংলাদেশবিরোধী একটি গোষ্ঠী এবং কিছু জ্ঞানপাপীরা ষড়যন্ত্রমূলকভাবে সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করার জন্যই পরিকল্পিতভাবে এই অপপ্রচার করেছে এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের মাধ্যমে সবার কাছে সুনিপুণভাবে মিথ্যা তথ্য পৌঁছে দিয়েছে। বাংলাদেশের উপক‚লীয় এলাকায় রাডার স্থাপন নিয়ে ঔড়রহঃ ঝঃধঃবসবহঃ বা বাংলাদেশ-ভারত যৌথ ঘোষণায় কি বলা আছে, চলুন দেখে নিইÑ ইড়ঃয চৎরসব গরহরংঃবৎং বিষপড়সবফ ঃযব রহরঃরধঃরাবং ভড়ৎ ফবাবষড়ঢ়সবহঃ ড়ভ পষড়ংবৎ গধৎরঃরসব ঝবপঁৎরঃু চধৎঃহবৎংযরঢ়, ধহফ হড়ঃবফ ঃযব ঢ়ৎড়মৎবংং সধফব রহ ভরহধষরুধঃরড়হ ড়ভ ধহ গড়ট ড়হ ঊংঃধনষরংযসবহঃ ড়ভ ঈড়ধংঃধষ ঝঁৎাবরষষধহপব জধফধৎ ঝুংঃবস রহ ইধহমষধফবংয ধহফ বহপড়ঁৎধমবফ নড়ঃয ংরফবং ভড়ৎ বধৎষু ংরমহরহম ড়ভ ঃযব গড়ট. এর অর্থ কি? এর অর্থ হলো, আমরা মূলত ভারতের কাছ থেকে বাংলাদেশের উপক‚লীয় এলাকায় স্থাপনের জন্য রাডার কিনবো এবং মজার ব্যাপার হলো আমরা ভারতের কাছ থেকে ঋণ নিয়ে এই রাডারগুলো কিনবো এবং স্থাপন করবো। আমাদের এককালীন পুরো টাকাও দিতে হবে না। আমরা কিস্তিতে এই টাকা পরিশোধ করবো। পুরো ঝঁৎাবরষষধহপব জধফধৎ ঝুংঃবস বাংলাদেশেই বসবে এবং বংলাদেশের হাতেই থাকবে। বাংলাদেশ নৌবাহিনী এই রাডারের মাধ্যমে আমাদের উপক‚লীয় এলাকায় নজরদারি করবে।
আমরা যেমন বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট তৈরি করতে ফ্রান্সের সহযোগিতা নিয়েছি এবং উৎক্ষেপণ করতে যুক্তরাষ্ট্রের সহযোগিতা নিয়েছি, কিন্তু স্যাটেলাইটের নিয়ন্ত্রণ এবং মালিকানা আমাদের হাতেই আছে। বা একইভাবে যেমন মেট্রোরেল তৈরি করতে জাপানের ঋণ নিচ্ছি এবং তাদের প্রযুক্তি কিনছি, কিন্তু মেট্রোরেল তো আমরাই ব্যবহার করবো এবং আমাদের নিয়ন্ত্রণে থাকবে। বা চীনের কাছ থেকে যেমন সাবমেরিন কিনেছি এবং সাবমেরিন পরিচালনায় চীনের সহযোগিতা নিয়েছি, কিন্তু সাবমেরিনের মালিকানা এবং নিয়ন্ত্রণ বাংলাদেশেরই আছে, বাংলাদেশের নৌবাহিনীই নিয়ন্ত্রণ এবং ব্যাবহার করছে এই সাবমেরিনগুলো। একইভাবে ভারতের কাছ থেকে বাংলাদেশের উপক‚লীয় এলাকায় স্থাপনের জন্য আমরা রাডার কিনবো এবং এগুলো স্থাপনে তাদের সহযোগিতা নেবো।
বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট বা মেট্রোরেল বা চীনা সাবমেরিনের মতো বাংলাদেশের উপক‚লীয় এলাকায় স্থাপিত রাডারগুলোই বাংলাদেশই নিয়ন্ত্রণ করবে এবং ব্যবহার করবে। বাংলাদেশ নৌবাহিনী এই রাডারগুলো দিয়ে নজরদারির মাধ্যমে উপক‚লীয় এলাকায় আমাদের নিরাপত্তা সুরক্ষার করবে। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]