জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে মানিয়ে নেয়া বাংলাদেশের জন্য জরুরি

আমাদের নতুন সময় : 18/10/2019

মনিরুল ইসলাম : অতি অল্প ভূমি এবং বিশাল জনসংখ্যার কারণে পরিবেশবান্ধব ও অর্থনৈতিকভাবে টেকসই এমন উন্নয়নের পথ অবলম্বন করা উচিত বাংলাদেশের। যা নারী ও দরিদ্রদের জন্যও উপকার বয়ে আনবে। অক্সফোর্ড বিশ^বিদ্যালয়ের এনবিএস ইন্সটিটিউট এর অধ্যাপক নাথালি সেডন এসব কথা বলেন।
গত ১৪ ও ১৫ অক্টোবর রাজধানীর লেকশোর হোটেলে ন্যাচার বেসড সলিউশন-এনবিএস বা প্রকৃতিভিত্তিক সমাধান বিষয়ক এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। অক্সফোর্ড বিশ^বিদ্যালয়ের অধ্যাপক নাথালি সেডন এ কর্মশালা পরিচালনা এবং কিনোট পেপার উপস্থাপন করেন। তিনি এনবিএসকে একটি ছাতার সঙ্গে তুলনা করে নিজস্ব তত্ত্ব উপস্থাপন করেন। এ তত্ত্বে তিনি যুক্ত করেছেন বাস্তুতান্ত্রিক মানিয়ে নেয়ার সক্ষমতা, পরিবেশ বিপর্যয়সূচক ঝুঁকি কমানো এবং সবুজ অবকাঠামো।
ইন্টার পার্লামেন্টারি ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট সাবের হোসেন চৌধুরী উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. মনজুরুল হান্নান খান সমাপনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, সরকারি বিভাগ, গবেষণা সংস্থা ও এনজিওর কর্মকর্তারা। এ কর্মশালা বাংলাদেশের বর্তমান ও ভবিষ্যত এনবিএস পরিকল্পনায় যুক্ত বিভিন্ন খাতে নিয়োজিত ব্যক্তিরা পরস্পরের মতামত ভাগাভাগি করেছেন।
কর্মশালার অন্যতম উদ্যোক্তা ও ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ক্লাইমেট চেঞ্জ অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট এর ড. সালেমুল হক বাংলাদেশের ৮ম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় এনবিএসকে যুক্ত করার আহ্বান জানান।
লেখক : অধ্যাপক, ডিপার্টমেন্ট অব ফিশারিজ, ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]