সমর্থকদের এফডিসিতে ঢুকতে না দেয়ার অভিযোগ মৌসুমীর

আমাদের নতুন সময় : 18/10/2019

ইমরুল শাহেদ : চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৫ অক্টোবর। হিসাব অনুসারে আর মাত্র এক সপ্তাহ বাকি আছে। স্বাভাবিকভাবেই এ সময়টাতে এফডিসি চত্বর বেশ জমজমাটই থাকবে। প্রতিদিন এফডিসিতে প্রযোজক, পরিচালক, শিল্পী সমিতিসহ ২১টি সংগঠনের লোক যাতায়াত করেন। এতো লোকের যাতায়াতের মধ্যে দু’চারজন বহিরাগত থাকতেই পারেন। মৌসুমী অভিযোগ করেছেন, বহিরাগতর প্রশ্ন তুলে তার সমর্থকদের এফডিসিতে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। এদের অধিকাংশই শিল্পী সমিতির সদস্য ছিল। তাদের সদস্যপদ স্থগিত করে সহযোগী করা হয়েছে। তাই বলে তারা এফডিসিতে ঢুকতে পারবে না এমনটা মেনে নেওয়া যায় না।
বহিরাগতের প্রশ্নটি তোলা হয়েছে মিশা-জায়েদ প্যানেলের পক্ষ থেকে। বুধবার রাতে সংবাদ সম্মেলন করেই মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান অভিযোগ করেছেন, মৌসুমী বহিরাগতদের নিয়ে এফডিসিতে নির্বাচনি মিছিল করেছেন। মিশা-জায়েদের এই অভিযোগের জবাবে মৌসুমী বলেন, ‘আমি বহিরাগতদের নিয়ে মিছিল করেছি এটা মিথ্যা কথা। মিছিলের ভিডিও ফুটেজ আছে। যেসব শিল্পী আমাকে পছন্দ করেন তারাই আমার মিছিলে অংশ নিয়েছেন। আমি কোনো বাইরের লোক নিয়ে মিছিল করিনি। নির্বাচন ঘিরে ওরা যখন যা ইচ্ছে বলে যাচ্ছে, এটা ঠিক নয়। দিন শেষে আমাদের সবার পরিচয় একটাই, আমরা চলচ্চিত্র শিল্পী।’
বহিরাগত প্রসঙ্গে এফডিসির নিরাপত্তা রক্ষীদের কাছে জানতে চাওয়া হলে তারা বলেছেন, তারা কোনো বহিরাগতকে এফডিসিতে প্রবেশ করতে দেন না। তাহলে মিশা সওদাগর ও জায়েদ খানের অভিযোগ কি মৌসুমীর বিরুদ্ধে, নাকি এফডিসির নিরাপত্তা রক্ষীদের বিরুদ্ধে? বহিরাগত যদি মিশা সওদাগর ও জায়েদ খানের জন্য সমস্যা হয়ে তাহলে সেটা তারা এফডিসি প্রশাসনকে লিখিত বা মৌখিকভাবে জানাতে পারতেন। সেটা না করে তারা মৌসুমীর মিছিল নিয়ে প্রশ্ন তুললেন কেন? সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]