• প্রচ্ছদ » » আমাদের নতুন প্রজন্ম আবার ফুটবল নিয়ে স্বপ্ন দেখছে


আমাদের নতুন প্রজন্ম আবার ফুটবল নিয়ে স্বপ্ন দেখছে

আমাদের নতুন সময় : 20/10/2019

লীনা পারভীন

আমার ছেলেদের জন্ম ২০০৩ সালে। জন্ম হয়েই দেখেছে দেশে খেলা বলতে ক্রিকেট ক্রেইজ। ফুটবলের যে পাগলা ক্রেইজ ছিলো তারা সেটা পায়নি বা গল্পেও শোনেনি, কারণ ফুটবলের গল্প হারিয়ে গেছে ততোদিনে। হঠাৎ করে গত সপ্তাহে দু’জন এসে বায়না ধরলো স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ বনাম কাতারের খেলা দেখতে যাবে। আমি প্রথমে বুঝিনি। ভাবছিলাম ক্রিকেটের কোনো ম্যাচ তো এখন হচ্ছে না বা ঢাকা স্টেডিয়ামে (বর্তমান বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম) এখন কোনো খেলা হয় না তাহলে তারা কোন্ খেলা দেখতে চায়? দুই-তিনবার জিজ্ঞেস করে কনফার্ম হলাম তারা ফুটবলই দেখতে যেতে চায়। বন্ধুরা মিলে দলবেঁধে যাবে। অবাক বিস্ময়ে জানতে চাইলাম হঠাৎ এই ইচ্ছা কেন? উত্তরে জানালো আমাদের অধিনায়ক জামাল ভ‚ঁইয়া ফেসবুকে তার দর্শকদের অনুরোধ করেছেন দেশের ফুটবলকে বাঁচাতে যেন সবাই মাঠে যায়। সেই ভিডিও আমার ছেলেদের ও বন্ধুদের দারুণভাবে আকর্ষণ করেছে। শুনে আমার মনটাই ভরে গেলো আবার কিছুটা লজ্জাও পেলাম, কারণ এই ভিডিও কোথাও ভাইরাল হয়েছে বলে আমার চোখে পড়েনি বা আমি মিস করেছি। আগ্রহ ও আবেগে আমি তাদের অনুমতি নয় কেবল যাবার সব খরচের আয়োজনও করে দিলাম। আমার উদ্দেশ্য ছিলো : ১. তারা দেশের ফুটবল জাগরণের পার্ট হতে চাইছে এটা দারুণ নিউজ। ২. এমন অধিনায়কও ফুটবলে এসেছে যিনি দেশের ফুটবলের মৃতদেহটিতে প্রাণ যোগাতে চাইছেন। সুতরাং সেখানে অংশ নিয়ে সম্মান জানানো আমাদের কর্তব্য। ৩. আমাদের একসময়কার ঐতিহ্যবাহী স্টেডিয়াম কেমন ছিলো সেটাও দেখে আসুক আমার প্রজন্মরা।
খেলার মাঠে বসেই ছেলেরা হোয়াটস অ্যাপে আমাকে প্রতিটা আপডেট দিচ্ছিলো। স্টেডিয়ামভর্তি দর্শক দেখে তারাও আবেগাপ্লুত। গোল মিস হলেও দারুণ খেলেই মিস করছে, হারলেও ফাইট করে হেরেছেÑ ইত্যাদি সব মেসেজ পাচ্ছিলাম আমি আর তাদের আবেগ দেখে ভরসা পাচ্ছি। অন্য রকম এক ভালোলাগার আবেগে আমি ফিরে গেলাম। এমনিতেই আমার ছেলেরা আমার সঙ্গে দারুণ অ্যাটাচড। খেলার প্রতি আমার আকর্ষণ তারা জানে। তবে আমি দেখছি অন্য ইস্যু। আমাদের নতুন প্রজন্ম আবার ফুটবল নিয়ে স্বপ্ন দেখছে। খেলোয়াড়দের নিয়ে আলোচনা করছে। প্রতিটা ফুটবলারের নাম ও ব্যাকগ্রাউন্ড জানছে যেমনটা আমরা জানতাম আসলাম, কায়সার হামিদ, সাব্বির, মুন্না, সালাউদ্দিনদের। আমার দুই ছেলের চোখে আমি বাংলাদেশকে বোঝার চেষ্টা করি। হারানো ঐতিহ্য আবার ফিরে আসবে এটাও বুঝলাম। জামাল ভ‚ঁইয়া আবার সবাইকে টেনে নিতে সমর্থ হবে মাঠে। আমাদের ক্রিকেট আর ফুটবল চলবে পাশাপাশি। দেশ এগোবে, এগোবে দেশের ক্রীড়াঙ্গন। হারানো অতীত আবার বর্তমান হবে। সোনার বাংলা আবারও জেগে উঠবে, মেতে উঠবে চার-ছক্কা আর গোলের বন্যায়। তরুণ প্রজন্ম ক‚পমুÐকতাকে পায়ে দলে আগামীর উচ্ছল বাংলাদেশকে নিশ্চিত করবে। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]