• প্রচ্ছদ » সাবলিড » দেশের উন্নয়নে বিশ্বের সবাই সহযোগিতা করতে চায়, জানালেন অর্থমন্ত্রী


দেশের উন্নয়নে বিশ্বের সবাই সহযোগিতা করতে চায়, জানালেন অর্থমন্ত্রী

আমাদের নতুন সময় : 20/10/2019

সাইদ রিপন : বিশ্ব ব্যাংক থেকে শুরু করে সবাই বলেছে বাংলাদেশের সক্ষমতা বেড়েছে এবং সঠিক পথে রয়েছে। সবার কাছ থেকে একটা স্পষ্ট বার্তা ছিল যে, সবাই প্রচুর পরিমাণে বাংলাদেশকে সহযোগিতা করতে চায়। এটা আমাদের জন্য বড় বার্তা। বিশ্ব ব্যাংক বাংলাদেশকে বাড়তি ঋণ দিতে উন্মুখ হয়ে আছে। আশা করছি এবারই বিশ্বব্যাংক থেকে আমাদের সবচেয়ে বড় সহযোগিতা আসবে।
গত শুক্রবার ওয়াশিংটনে বিশ্বব্যাংক ও আইএমএফের বার্ষিক সভায় কয়েকটি সংস্থার সঙ্গে বৈঠক শেষে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এসব কথা বলেন। আইএফসির আঞ্চলিক ভাইস প্রেসিডেন্ট, জাপান ব্যাংক ফর ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশনের (জেবিআইসি) ডেপুটি গভর্নর, ইউএসএআইডির ট্যাঙ্ক রিফর্ম বিষয়ক এবং সড়ক নিরাপত্তা নিয়ে বিশ্ব ব্যাংকের দক্ষিণ এশীয় অঞ্চলের আয়োজিত বৈঠকে অংশ নেন অর্থমন্ত্রী।
তিনি বলেন, বাংলাদেশের বেসরকারি খাতের উন্নয়ন বিনিয়োগ বাড়াবে ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স কর্পোরেশন (আইএফসি)। এজন্য সংস্থাটি সারা বিশে^র জন্য বেসরকারি খাতে এক হাজার বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করার ঘোষণা করেছে। সম্প্রতি আইএফসি থেকে বাংলাদেশের একটি বেসরকারি কোম্পানি ১৯ মিলিয়ন ডলার নিয়েছে। এর আগেও অনেক বেসরকারি কোম্পানিতে বিনিয়োগ করেছে আইএফসি। যার ফলাফল বেশ ভাল। ফলে বাংলাদেশে কর্মসংস্থানের পরিধি আরো বাড়বে বলে মনে করছি। এছাড়া আইএফসি ঋণে সুদহার ১০ শতাংশের কম হবে।
মন্ত্রী বলেন, রাজস্ব সংগ্রহে সক্ষমতা বৃদ্ধিতে ইউএসএআইডি সহায়তা করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এছাড়া জাপান ব্যাংক ফর ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন (জেবিআইসি) বাংলাদেশে বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এই প্রতিষ্ঠানটি দীর্ঘদিন যাবৎ নিষ্ক্রিয় ছিল। এবার তারা অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে কার্যকরভাবে বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। তারা বিনিয়োগ করলে আমাদের আরেকটি নতুন জানালা খুলে যাবে।
সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ক বৈঠক সম্পর্কে তিনি বলেন, সড়কের নিরাপত্তা জোরদার করা অত্যন্ত জরুরি। অকাল মৃত্যু কারোর জন্যই কাম্য নয়। বিশ্ব ব্যাংক যদি এ বিষয়ে কাজ করে আশা করি অত্যন্ত ভাল করবে। সম্পাদনা : রমাপ্রসাদ বাবু




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]