• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » পরীক্ষামূলকভাবে পাবজি বন্ধ করা হয়েছিলো, বললেন মোস্তাফা জব্বার


পরীক্ষামূলকভাবে পাবজি বন্ধ করা হয়েছিলো, বললেন মোস্তাফা জব্বার

আমাদের নতুন সময় : 20/10/2019

জাফর আহমেদ : দক্ষিণ কোরিয়ার ডেভেলপার প্রতিষ্ঠান ব্লু হোয়েলের তৈরি করা অনলাইন ভিডিও গেম প্লেয়ার আননোনস ব্যাটেলগ্রাউন্ডস (পাবজি) বন্ধ করার একদিন পরেই খুলে দেওয়া হয়েছে। গেমটির মাধ্যমে তরুণরা সহিংসতায় উদ্বুদ্ধ হতে পারে আশঙ্কায় গেমটি বন্ধ করা হয়েছিল বল জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।
পাবজি কেন নিষিদ্ধ করে একদিন পরেই চালু করা হয়েছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, ভারত, নেপাল,চীনসহ কয়েকটি দেশে পাবজি গেমটি নিষিদ্ধ করা হয়েছিলো বলেই পরীক্ষামূলকভাবে আমরা (বাংলাদেশে) পাবজি বন্ধ করে ছিলাম। সেটা আবার খুলে দেওয়া হয়েছে। আমাদের ধারণা ছিল, এটি খুব ক্ষতিকর একটি বিষয়। পরে পর্যালোচনা করে দেখা গেছে ক্ষতিকারক এমন কোনোকিছু নেই। তাই খুলে দেওয়া হয়েছে। সবকিছইু খারাপ ভাবলে ইন্টারনেট বন্ধ করে দিতে হবে। এই গেম অনলাইনে খেলতে পারে, কম্পিউটারেও খেলতে পারে, যে যেভাবে খেলুক না কেন এর দায়িত্ব সরকারের নয়। আঠরো বছরের ছেলেমেয়ে কি করবে এই সিদ্ধান্ত তার, এটা আমাদের নয়। আমরা সিদ্ধান্ত নিলে তার স্বাধীনতার হস্তক্ষেপ করা হবে। তাই আমরা তার স্বাধীনতার হস্তক্ষেপ করতে পারি না। আঠারো বছরের নিচে ছেলেমেয়েরা খেললে তার দায়িত্ব বাবা-মাকে নিতে হবে। তবে আমরা পর্ণ,জোয়া, সিকোওরিটি, এই খারাপ সাইডগুলো বন্ধ করে দিয়েছে এবং এর বিরুদ্ধে যে ব্যবস্থা নেয়ার দরকার তা আমরা নিবো।
অভিভাবকরা অভিযোগ করেছিলেন, পাবজি গেম শিক্ষার্থীদের মধ্যে সহিংস মনোভাব তৈরি করছে। একই সঙ্গে পড়াশোনা থেকে শিক্ষার্থীরা মনোযোগ অন্য জায়গায় সরিয়ে নিচ্ছে বলেও অভিযোগ অভিভাবকদের। অভিভাবকদের কাছ থেকে অসংখ্য অভিযোগ পাওয়ার পর গেমটি বাংলাদেশ থেকে খেলা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। এই নিয়ে মো¯াÍফা জাব্বার তার ফেসবুকে একটি স্টাটার্স দিয়েছিলেন।
উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে ভারত, নেপাল, চীনসহ কয়েকটি দেশে পাবজি গেমটি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ২০১৭ সালে চালু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী ১০ কোটির বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে এই গেম। সম্পাদনা : শাহিদ আবেদীন




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]