• প্রচ্ছদ » » বৈচিত্র্যময় সৃষ্টিতে বেঁচে আছেন ক্ষণজন্মা কবি রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ


বৈচিত্র্যময় সৃষ্টিতে বেঁচে আছেন ক্ষণজন্মা কবি রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ

আমাদের নতুন সময় : 20/10/2019

ভালো আছি ভালো থেকো, আকাশের ঠিকানায় চিঠি লিখো। স্মরণের এই সরণিতে আরও একটি নাম রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ। রোমান্টিকতার সঙ্গে কবিতায় যিনি তুলেছিলেন প্রতিবাদী ঝড়, মোহিত করেছিলেন অগণিত পাঠককে। যদিও ১৯৫৬ সালের ১৬ অক্টোবর বরিশালে জন্ম নেয়া কবি বেঁচেছিলেন মাত্র ৩৪ বছর। তবু তার বৈচিত্র্যময় অনন্য সৃষ্টিতে আজও বেঁচে আছেন তিনি পাঠকের মনে।কবি রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ যদি হারিয়ে না যেতেন চৌত্রিশে তবে আজ ছুঁয়ে দেখতেন তেষট্টির বসন্ত। স্বর্গলোকের যাত্রায় যদিও তা হয়নি তবে সাদা পৃষ্ঠাজুড়ে যে স্বপ্নলোকের পঙক্তি তিনি গেঁথেছেন সেই মালায় আজও সিক্ত ক্ষণজন্মা রুদ্র।
পুরো নাম রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ জন্মভ‚মি বরিশাল শুধু নয় দেশ ছাপিয়ে যার কীর্তি পেরিয়েছে কাঁটাতারের সীমানাও। কবিতার চরণ ছুঁয়ে রুদ্রর যতো আবেগ, ভালোবাসা কিংবা দ্রোহ অথবা যন্ত্রণা তা মাত্র সাতটি বইয়ের রঙিন মলাটে আবদ্ধ হলেও তা ছুঁয়ে গেছে সপ্তর্ষিমÐল ছুঁয়ে গেছে সাতসমুদ্র।
গল্প-নাটকের চিত্রনাট্যেও রুদ্রর ছিলো অবাধ যাতায়াত আর গানের কথা, শব্দের সেই মিছিলও যেন ছিলো রুদ্রর আবেগ মাখা।
সময়ের পালাবদলে হয়তো নতুন করে লেখা হবে আলো-আঁধারীর গল্প, তবু হারাবে না রুদ্র, গল্পের কালো হরফে তিনি রয়ে যাবেন সদা হাস্যোজ্জ্বল। শতবর্ষ পরও হয়তো গেয়ে উঠবেন গুনগুনিয়ে। সূত্র : চ্যানেল২৪




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]