• প্রচ্ছদ » » কারো নাম প্রকাশ্যে কারো উহ্য মিডিয়া ট্রায়াল নাকি দায়মুক্তি


কারো নাম প্রকাশ্যে কারো উহ্য মিডিয়া ট্রায়াল নাকি দায়মুক্তি

আমাদের নতুন সময় : 21/10/2019

বিভুরঞ্জন সরকার : ক্যাসিনো-কা-ে গ্রেফতার যুবলীগ নেতা স¤্রাটের বরাত দিয়ে গণমাধ্যমে কিছু নাম সরাসরি আসছে। আবার কিছু নাম আসছে ইঙ্গিতে। কেন এমন হচ্ছে? একটি জাতীয় দৈনিকে রাশেদ খান মেননকে স¤্রাট ১০ লাখ টাকা মাসোহারা দিতেন- এই তথ্য প্রকাশ পেয়েছে। প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, টাকা গ্রহীতাদের তালিকায় মেননের নাম ৫ নম্বরে।
প্রশ্ন হলো, ১ থেকে ৪ নম্বরে নামগুলো কাদের? সেগুলো প্রকাশ হলো না কেন? আওয়ামী লীগের একজন প্রভাবশালী নেতার কথা বলা হচ্ছে। কিন্তু তার নাম-পদবি গোপন করা হচ্ছে কেন? মেনন কিংবা যুবলীগ সভাপতির নাম বলা গেলে কারো কারো নাম উহ্য থাকছে কেন?
একটি পত্রিকার খবর : সম্রাট নাকি তার খুঁটির কথা জানিয়েছে। এই সাত খুঁটির কারো কারো নাম-পরিচয় আছে। কারো নেই। যেমন একজনকে বলা হয়েছে গোপালগঞ্জের সংসদ সদস্য। স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুবলীগ নেতাদের নাম বলা গেলে ‘গোপালগঞ্জের এমপি’র নাম বলা যাচ্ছে না কেন? তিনি কি এতোই দাপুটে যে, তার নাম নিতে সবার বুক কাঁপে? তাহলে ‘কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না’ – বলে যেটা বলা হচ্ছে তা কথার কথা?
কয়েকজন সিনিয়র সাংবাদিকের নামও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘুরছে। এগুলো কি অসত্য? মূলধারার গণমাধ্যমে এ নিয়ে কোনো খবর, মন্তব্য নেই কেন? কারো সুনামহানিকর খবর প্রকাশ যেমন কাম্য নয়, তেমনি তথ্য প্রকাশে পক্ষপাতও সমর্থন করা যায় না।
একটি কঠিন সময় আমরা পার করছি। সন্দেহর চোখ সবার দিকেই যেতে চায়। অবিশ্বাসের পরিবেশ চার দিকে। বিভ্রান্তি দূরের করার দায়িত্ব যাদের তাদেরই কি বিভ্রান্তি ছড়ানোর ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে না?
কারো ক্ষেত্রে মিডিয়া ট্রায়াল, কেউ পেয়ে যাচ্ছেন দায়মুক্তি।
অপরাধী সাব্যস্ত করার দায়িত্ব আদালতের, তবে অভিযোগ গঠন যদি ত্রুটিমুক্ত না হয়, তাহলে বিচার কেমন হবে তা বুঝতে বড় প-িত হওয়ার দরকার আছে কি?




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]