• প্রচ্ছদ » সাবলিড » রোহিঙ্গা আশ্রয় দিয়ে চড়া মূল্য দিতে হচ্ছে বললেন অর্থমন্ত্রী


রোহিঙ্গা আশ্রয় দিয়ে চড়া মূল্য দিতে হচ্ছে বললেন অর্থমন্ত্রী

আমাদের নতুন সময় : 21/10/2019

সাইদ রিপন : অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, মিয়ানমারের নির্যাতনের শিকার হয়ে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের মানবিক কারণে আশ্রয় দেয়া হলেও এখন তার চরম মূল্য দিতে হচ্ছে। বর্তমানে কক্সবাজারসহ আশেপাশের এলাকার পুরো পরিবেশ বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে। এতে আমাদের সামাজিকভাবে ও জলবায়ুগত চ্যালেঞ্জ বাড়ছে। আমাদের সামাজিক বন্ধনসহ যে সব ক্ষতি হচ্ছে তা ডলার বা টাকার অংকে পরিমাপ করা সম্ভব নয়। আমরা মনে করছি রোহিঙ্গাদের নিজ দেশ মিয়ানমারে প্রত্যাবর্সনের কোনো বিকল্প নেই। যে কোনো উপায়ে দ্রুততম সময়ের মধ্যে রোহিঙ্গা নাগরিকদের নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে বিশ্বব্যাংকের সহায়তা চাওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে বিশ্বব্যাংক একটি বড় ভূমিকা রাখতে পারবে।
গত শনিবার ওয়াশিংটনে বিশ্বব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে রোহিঙ্গা শরণার্থী বিষয়ক এক গোলটেবিল বৈঠকে অর্থমন্ত্রী এসব কথা বলেন। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট, হার্টউইগ শেফার, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব মনোয়ার আহমেদ, অর্থ সচিব আবদুর রউফ তালুকদারসহ সংশ্লিষ্টরা। বৈঠকে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীদের নিজ দেশে ফিরে যেতে পারে সেই বিষয়ে বিশ্বব্যাপী জনমত গড়ে তোলার জন্য বিশ্বব্যাংকে জোরালো ভূমিকা রাখতে বলেছে বাংলাদেশ। এই বিষয়ে ইতিবাচক মনোভব প্রকাশ করেছেন হার্টউইগ শেফার।
অর্থমন্ত্রী বলেন, আমরা রোহিঙ্গাদের জন্য মারাত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। এই জন্য বলছি তাদের নিজ দেশে ফিরিয়ে নেন। কোনো বিকল্প ব্যবস্থা নেই, শুধু তাদের ফিরিয়ে নেন। আমরা বিশ্বাস করি বিশ্বব্যাংক বিশ্বববাসীর সঙ্গে আলাপ করে একটা ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নেবে। রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে পাঠাতে হলে সবার সহযোগিতা নিতে হবে। তবে এখনও কেউ আপত্তি করেনি যে তারা যাবে না। এজন্য বিশ্বব্যাংক বা অন্য কোনো উন্নয়ন সহযোগীর এখাতে আর্থিক সহায়তার বিষয়টি আমরা ভাবছি না। সম্পাদনা : রমাপ্রসাদ বাবু




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]