• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » শপথ নিলেন হাইকোর্টে নিয়োগ পাওয়া ৯ বিচারপতি বারের সভাপতি-সম্পাদকের পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন


শপথ নিলেন হাইকোর্টে নিয়োগ পাওয়া ৯ বিচারপতি বারের সভাপতি-সম্পাদকের পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

আমাদের নতুন সময় : 22/10/2019

নূর মোহাম্মদ : হাইকোর্ট বিভাগে নিয়োগ পাওয়া ৯ অতিরিক্ত বিচারপতি শপথ নিয়েছেন। গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় সুপ্রিম কোর্টের জাজেস লাউঞ্জে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন তাদের শপথবাক্য পাঠ করান। শপথ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন হাইকোর্ট বিভাগের রেজিস্ট্রার গোলাম রব্বানী। শপথ অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন সুপ্রিম কোর্ট জামে মসজিদের খতিব আবু সালেহ মো. সলিমুল্লাহ। শপথ শেষে নতুন বিচারপতিদের বিভিন্ন বেঞ্চে দায়িত্ব দেয়া হয়।
শপথ নেওয়া ৯ অতিরিক্ত বিচারপতিরা হলেন- মুহম্মদ মাহ্বুব-উল ইসলাম ও শাহেদ নূরউদ্দিন, সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল ড. মো. জাকির হোসেন, জেলা ও দায়রা জজ ড. মো. আখতারুজ্জামান, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. মাহমুদ হাসান তালুকদার, কাজী ইবাদত হোসেন ও এ. কে. এম. জহিরুল হক। এছাড়া ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল কে এম জাহিদ সারওয়ার ও কাজী জিনাত হক। এর আগে রোববার তাদেরকে অতিরিক্ত বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দেন রাষ্ট্রপতি।
এদিকে শপথের পর সংবাদ সম্মেলনে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, দুঃখজনক হলেও সত্য বিচারপতিদের তালিকায় দুইজনের নাম দেখে জাতি হতাশ হয়েছে। যারা তিন বারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়েছেন। আরেকজন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে সাজা দিয়েছেন। খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে সাজা দেয়ার পুরস্কার হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে তাদের নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ১৩৭ জনকে ডিঙ্গিয়ে খালেদা জিয়াকে সাজা প্রদানকারী বিচারককে নিয়োগ দেয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।
তবে সম্পাদকের সংবাদ সম্মেলনের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বারের সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিন বলেন, একটা বিচারককে বিচার করা হয় তার জীবনের অনেকগুলো রায়ের মাধ্যমে। যদি আমার বিরুদ্ধে রায় দেন তাহলে উনি খারাপ বিচারক হয়ে গেলেন-এ ধরণের মনোভাব তো আমাদের অবশ্যই থাকা উচিত না। বিচারক রায় দিলে তার বিরুদ্ধে কথা বলা আইনজীবী হিসেবে কোনোভাবেই কাম্য না। নিশ্চিতভাবে বলতে পারি এটি তিনি (মাহবুব উদ্দিন খোকন) রাজনীতিবিদ হিসেবে বলেছেন। অবশ্যই এটা আইনজীবী হিসেবে বলেননি। সম্পাদনা : কাজী নুসরাত




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]