• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » আজ শামসুর রাহমানের জন্মদিন, তিনি মানুষের মৃত্যুকে মেনে নিতে পারতেন না, জানালেন কবি নির্মলেন্দু গুণ


আজ শামসুর রাহমানের জন্মদিন, তিনি মানুষের মৃত্যুকে মেনে নিতে পারতেন না, জানালেন কবি নির্মলেন্দু গুণ

আমাদের নতুন সময় : 23/10/2019

দেবদুলাল মুন্না : আজ কবি শামসুর রাহমানের ৯১তম জন্মদিন। জন্মদিনে কবির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে গুগল তাদের বাংলাদেশের হোমপেজে এ ডুডল দিয়েছে। ডুডলটিতে গুগল লেখাটিকে লাল-সবুজে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। ইংরেজি গুগল লেখাটির ‘ও’ বর্ণের জায়গায় বসানো হয়েছে কবির মুখ। ১৯২৯ সালের ২৩ অক্টোবর ঢাকার মাহুতটুলির ৪৬ নম্বর বাড়িতে কবি শামসুর রাহমান জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবার নাম মুখলেসুর রহমান চৌধুরী এবং মায়ের নাম আমেনা খাতুন। ২০০৬ সালের ১৭ আগস্ট কবি ঢাকায় মারা যান। তার ইচ্ছানুযায়ী ঢাকার বনানী কবরস্থানে মায়ের কবরের পাশে সমাহিত করা হয়।
কবিতা, উপন্যাস, প্রবন্ধ, শিশুতোষ, অনুবাদ, সম্পাদনা, সাংবাদিকতায় কলামসহ কবির জীবিত অবস্থাতেই ১১২টি বই প্রকাশ পায়। সাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য কবি আদমজী পুরস্কার, বাংলা একাডেমী পুরস্কার, জীবনানন্দ পুরস্কার, একুশে পদক, আবুল মনসুর স্মৃতি পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কারে ভূষিত হন। কবি আসাদ চৌধুরী গতকাল বলেন, শামসুর রাহমান মজলুম আদিব (বিপন্ন লেখক) ছদ্মনামে লিখতেন। এটি অনেকেই জানেন না। তিনি একজন আধুনিক কবি হিসেবে বাংলাসাহিত্যে অনেকদিন বেঁচে থাকবেন।’ কবি নির্মলেন্দু গুণ বলেন, ‘ আমার সাথে তার ভালো সম্পর্ক ছিলো। তিনি সারাজীবনই মৃত্যভয়ে তাড়িত হয়েছেন।মানুষের মৃত্যু হয় এ সত্যটি তিনি মেনে নিতে পারতেন না। আমি একবার তার জন্মদিনে মৃত্যু বিষয়ে কবিতা লিখেছিলাম বলে তিনি আমার ওপর বেশ রাগ করেছিলেন।’ তার প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘প্রথম গান দ্বিতীয় মৃত্যুর আগে’ প্রকাশিত হয়েছিল ১৯৬০ সালে। ব্যক্তিজীবনে শামসুর রাহমান পেশায় সাংবাদিক ছিলেন। ১৯৫৭ সালে দৈনিক মর্নিং নিউজ-এ সহসম্পাদক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৫৭ থেকে ১৯৫৯ সাল পর্যন্ত রেডিও পাকিস্তানের অনুষ্ঠান প্রযোজক ছিলেন। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]