• প্রচ্ছদ » » দেশে যখনই সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা-হাঙ্গামা হয়েছে, সবসময়ই শিক্ষিত মিডলক্লাসের একটা অংশ এগিয়ে এসেছে


দেশে যখনই সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা-হাঙ্গামা হয়েছে, সবসময়ই শিক্ষিত মিডলক্লাসের একটা অংশ এগিয়ে এসেছে

আমাদের নতুন সময় : 24/10/2019

ইমতিয়াজ মাহমুদ

বিবিসির প্রতিবেদনে দেখাচ্ছে যে ভোলাতে সেদিন মুসলমান ‘তৌহিদী জনতা’ হিন্দুদের মন্দিরে, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ও বাড়িঘরে হামলা করেছে। মন্দিরে হামলা করে মূর্তি ভেঙেছে। বিবিসির প্রতিবেদনটা কি ভুল? মিথ্যা খবর দিচ্ছে বিবিসি? তাদের প্রতিবেদনটা যদি মিথ্যা হয় তাহলে তাদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন নিন। বিলাতের আদালত মোটামুটি বেশ শক্ত আছেÑ মিথ্যা খবর প্রচার করলে বিবিসি পার পাবে না। কিন্তু বিবিসির খবর যদি সত্যি হয় তাহলে আমাদের দেশের সংবাদকর্মীদের কাছে আমার একটা প্রশ্ন আছে।
ভোলায় যে হিন্দুদের বাড়িতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ও মন্দিরে হামলা হলো, মূর্তি ভাঙা হলো, এসবের খবর আপনারা প্রচার করলেন না কেন? মেহেরবাণী করে খবর চেপে রাখবেন না। সত্য গোপন করে কখনোই দেশ ও জাতির কোনো উপকার হয় না। হিস্টরিক্যালি এই দেশে যখনই কোনো সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা হাঙ্গামা হয়েছে, সবসময়ই দেশের শিক্ষিত মিডলক্লাসের একটা অংশ এগিয়ে এসেছে শান্তির পক্ষে অবস্থান নিয়েছে, জনমত তৈরি করেছে। খবর গোপন রাখলে তারা পদক্ষেপ কি করে নেবে? আর দুর্বৃত্তরা কুকর্ম করেছে সেটা স্পষ্ট করে প্রকাশ করতে হয়, জানাতে হয় সবাইকে। না জানালে তো আপনি দুর্বৃত্তদের পক্ষেই কাজ করলেন। আর তথ্য গোপন করলে কি হয়? গুজব ছড়াতে শুরু করে আর গুজব থেকে ডালপালা গজায়। এগুলো তো আপনারা আমাদের চেয়ে বেশি জানেন, ভালো জানেন। আর সরকার যদি এসব তথ্য গোপনের জন্য আপনাদের চাপ দেয় সেইটাই বা আপনারা মানবেন কেন? আমার মনে হয় না সরকার এ রকম কোনো চাপ দিয়েছে। অফিসিয়ালি তো দিতে পারেই না, অনানুষ্ঠানিকভাবে যদি কেউ খবর চেপে যেতে বলেন সেটা আপনারা মানবেন কেন? সরকারকে বোঝান যে এভাবে খবর চেপে রাখা যায় না। খবর ঠিকই বের হয়ে যায়। মাঝখান থেকে আপনারা বিশ্বাসযোগ্যতা হারাবেন আর গুজবের জন্য উর্বর ক্ষেত্র তৈরি হবে। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]