• প্রচ্ছদ » আমাদের খেলা » দর্শকের মন্তব্যে রিয়্যাক্ট করে গ্যালারিতে ঢুকে পড়া কি কোনোভাবেই ঠিক হয়েছে মুশফিকুর রহিমের?


দর্শকের মন্তব্যে রিয়্যাক্ট করে গ্যালারিতে ঢুকে পড়া কি কোনোভাবেই ঠিক হয়েছে মুশফিকুর রহিমের?

আমাদের নতুন সময় : 29/10/2019


ফরহাদ টিটো : শুরুটা করলেন মুশফিকই। ডানহাতি ব্যাটসম্যান হয়ে বামহাতি শট খেলছেন তিনি। এই বলেই অনর্থক কেয়ারলেস একটা শট (রিভার্স সুইপ) খেলতে গিয়ে আউটা হয়ে গেলেন খুব কম রানেই। তারপর মাথানিচু করে বেরিয়ে যাচ্ছেন তিনি মাঠ থেকে। দৃশ্য দুটি স্বাভাবিক মুশফিকের জন্য। তবে পরের এক মিনিটের মধ্যে শুরু হওয়া ঘটনাগুলো খুবই অস্বাভাবিক। যা জাতীয় দলের অন্যতম কা-ারি, জেন্টলম্যান মুশফিকুর রহিমের চরিত্রকে প্রতিনিধিত্ব করে না। একজন টিন এইজ বা বিশ-একুশ বয়সী দর্শক অথবা টাইগার ফ্যান গ্যালারি থেকে মন্তব্য ছুঁড়ে দিলেন, ‘মাথাটা উঠায়া যান। যা হওয়ার হইছে’। দর্শকের মন্তব্যটা হুবহু এভাবে হয়তো ছিলো না। কিন্তু এর কাছাকাছিই ছিলো। যা বারবার বলে যাচ্ছিলো সেই তরুণ খেলা/ম্যাচ সংশ্লিষ্ট কয়েকজনের চাপের মুখে। ছেলেটাকে জোর করেই স্টেডিয়াম থেকে বেরও করে দেয়া হয়েছিলো মুশফিকের প্রতিক্রিয়ার পর। কী করেছিলেন মুশফিক? মন্তব্যসহ্য করতে না পেরে রেগেমেগে ঢুকে পড়েছিলেন গ্যালারিতে। তারপর দর্শকটির উপর তার রাগ ঝেড়েছেন এবং বলেছেন, এমন কাজ ভবিষ্যতে না করতে। তার সঙ্গে না করে অন্য কারও সঙ্গে করলে ব্যাপারটা খারাপ হতে পারতো- এমন কথাও নাকি বলছিলেন মুশফিক। ধরেই নিলাম দর্শক অন্যায় করেছে অথবা বাড়াবাড়ি করেছে আমাদের সম্মানিত এই ক্রিকেটারের প্রতি শাউট/কমেন্ট করে। কিন্তু তাতে রিয়্যাক্ট করে গ্যালারিতে ঢুকে পড়া কি কোনোভাবেই ঠিক হয়েছে মুশফিকের? আমি বলবো, অবশ্যই ঠিক হয় নাই। তাকে অহমবৎ সধহধমবসবহঃ জানতে হবে। অবশ্যই এসব অর্থহীন এবং ঝুঁকিপূর্ণ রাগকে নিয়ন্ত্রণে আনতে হবে। গ্যালারিতে ঢুকে পড়ে তিনি তো আক্রমণেরও শিকার হতে পারতেন। কোনো আক্রমণাত্মক বা অসভ্য প্রকৃতির দর্শক-সমর্থককে শাসন করা, দমন করা বা শাস্তি দেওয়ার কাজটা নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা মানুষদের অথবা বিসিবির। এই কাজ অবশ্যই খেলোয়াড়দের নয়। খেলোয়াড়দের ওভার রিয়্যাক্ট করার ঘটনা ক্রিকেট বিশ্বে এই প্রথম নয়। তবে ক্রিকেটের এই যুগে তারকা খেলোয়াড়দের যে পরিমাণ তিরস্কার, টিটকারি এমনকি গালিও শুনতে হয় উপমহাদেশের অনেক মাঠে তার প্রতিবাদে গ্যালারিতে বসা দর্শককে কনফ্রন্ট করতে যাওয়া বা ধাওয়া দিতে যাওয়ার সাহস বা বোকামি করেন খুব কম খেলোয়াড়ই । খুব কম বলতে ব্যাপারটা প্রায় শূন্যের কোঠায় এখন। জাতীয় দলের প্র্যাকটিস ম্যাচে ঘটে যাওয়া ঘটনা নিয়ে মুশফিকুর রহিমকে নিজের সঙ্গে বসতে হবে কিছুক্ষণ। নিজেকে বোঝাতে হবে..




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]