হতাশা নিয়ে ভারত গেলো বাংলাদেশ

আমাদের নতুন সময় : 31/10/2019

রাকিব উদ্দীন : মঙ্গলবারের রুদ্ধশ^াস দিন শেষে সাকিবের ২ বছর নিষেধাজ্ঞার খবরে বিষন্নতায় ঢেকে যায় বাংলাদেশের ক্রিকেটাঙ্গন। ক্রিকেটারদের ধর্মঘট, সাকিবের বিজ্ঞাপনজনিত ঝামেলা এবং শেষ পর্যন্ত দেশসেরা এ অলরাউন্ডারের নিষেধাজ্ঞা যেন টর্নেডোর মতো এসে হামলা করে দেশের ক্রিকেটে। সবমিলিয়ে চরম হতাশা নিয়ে ভারতের সাথে পুর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে গেলো বাংলাদেশ। সাকিব ছাড়াও এই সিরিজে দেখা যাবে না দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবালকে।
হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ভারতের উদ্দেশে রওনা দেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। দেশ ছাড়ার পূর্বে হতাশাভরা কন্ঠে মুশফিকুর বলেন, ‘সাকিব এখন বিশ্বের এক নম্বর অলরাউন্ডার তাকে ছাড়া খেলাটা তো অবশ্যই অনেক চ্যালেঞ্জের। সাকিবের বিকল্প আসলে এখনও আমাদের নেই। তাকে অনেক বেশি মিস করবো, কারণ সাকিব আমাদের নাম্বার ওয়ান খেলোয়াড়।’
সাকিবের নিষেধাজ্ঞায় হতাশা লুকাতে পারেননি মাহমুদউল্লাহও। দেশ ছাড়ার আগে সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘আমরা সবাই জানি আমাদের দলের জন্য, দেশের জন্য কত বড় আঘাত। ও কত বড় খেলোয়াড় সবাই জানি। তবে হ্যাঁ, সে একটা ভুল করেছে, কিন্তু অপরাধ করেনি। আমাদের সকলের সমর্থন তার সঙ্গে আছে। আমরা সাকিবকে ভালবাসতাম। আশা করি ভালোবেসে যাবো।’
ভারতে তিনটি টি-টোয়েন্টি ও দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলবে টাইগাররা। তবে এ সিরিজে ঠিক কতটা জ¦লে উঠবে বাংলাদেশ সেটা কেউই বলতে পারছে না। তবে খুব একটা ভালো যাবে না সেটাই বললেন সাবেক ক্রিকেটার রাকিবুল হাসান। তার ভাষায়. ‘শ্রীলঙ্কা সফরেই আমরা দেখেছি টাইগাররা কিভাবে বিধ্বস্ত হয়েছে। সাকিব-তামিমবিহীন বাংলাদেশ ভারতে একেবারে নাস্তানাবুদ হবে।
৩ নভেম্বর তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি মাঠে গড়াবে। ৭ ও ১০ নভেম্বর দ্বিতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি অনুষ্ঠিত হবে। দুটি টেস্টের প্রথমটি ১৪ এবং দ্বিতীয়টি ২২ নভেম্বর শুরু হবে। সম্পাদনা : খালিদ আহমেদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]