• প্রচ্ছদ » আমাদের খেলা » আশরাফুলের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার আগেই ব্যবস্থা, অথচ অভিযুক্ত হয়েও লোকমান বহিষ্কার না হওয়ায় বিস্মিত সাবের


আশরাফুলের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার আগেই ব্যবস্থা, অথচ অভিযুক্ত হয়েও লোকমান বহিষ্কার না হওয়ায় বিস্মিত সাবের

আমাদের নতুন সময় : 01/11/2019


শিউলী আক্তার : ক্যাসিনোর কা-ে জড়িত থাকায় গ্রেপ্তার হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক (বিসিবি) লোকমান হোসেন। অথচ তাকে এখনো বিসিবি থেকে বহিষ্কার করা হয়নি। এতে অবাক বিসিবির সাবেক সভাপতি সাবেন হোসেন চৌধুরী। এছাড়াও অন্য বোর্ড পরিচালকদের বির্তকিত ঘটনায় নাজমুল হাসান পাপনের নীরব ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন সাবের হোসেন।
লোকমান হোসেন ভূঁইয়া বিসিবির প্রভাবশালী বোর্ড পরিচালকদের একজন। দেশে চলমান শুদ্ধি অভিযানে নিজ ক্লাব মোহামেডানে ক্যাসিনো অপকর্মে জড়িয়ে এখন আছেন কারাগারে। ক্যাসিনো হোতা লোকমান আটকের ৩৫ দিন পেরিয়েছে। এ নিয়ে ক্রিকেট বোর্ড নিয়ে সমালোচনা হলেও মুখে কুলুপ দিয়েছে বিসিবি।
বিসিবি কোনো প্রদক্ষেপ না নেয়ায় সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, যতদিন পর্যন্ত বিচারের কার্যক্রম শেষ না হচ্ছে ততদিন পর্যন্ত তাকে সাসপেন্ড করা উচিত। ক্রিকেটার মোহাম্মদ আশরাফুলের ক্ষেত্রে তখন কী হলো? তখন তো কোনও সুনির্দিষ্ট অভিযোগ আসেনি। তারপও তাকে তো তড়িতগতিতে ব্যবস্থা নেয়া হলো। এখন লোকমান সভাপতির বন্ধু হওয়ায় কী অনীহা!
শুধু লোকমান হোসেন কা-ে বিব্রত বিসিবি তাও কিন্তু নয়। এর আগে আরেক বোর্ড পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন দলের প্রধান কোচের দায়িত্বে থাকা অবস্থায় কলম্বোতে ক্যাসিনো খেলায় মেতে উঠে শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেন। এছাড়াও বেশ কয়েকজন বোর্ড পরিচালকের বিতর্কিত ঘটনায় দারুণভাবে ক্রিকেট বিশ্বে ইমেজ সংকটে পড়ে ক্রিকেট বোর্ডের।
বিসিবির সাবেক সভাপতি আরও বলেন, নামগুলো আমিও শুনেছি। সভাপতি যদি কাছের লোক মনে করে চলেন সেগুলো সভাপতির। বাংলাদেশ নিয়ে একটা পক্ষ-বিপক্ষ তৈরি হয়েছে। দায়িত্বপ্রাপ্ত বোর্ড পরিচালকদের বির্তকিত কর্মকা- আর ক্রিকেটারদের অপ্রত্যাশিত ঘটনায় দেশের ক্রিকেট গভীর সংকটে বলেও মন্তব্য সাবেক এ বিসিবি সভাপতির। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]