রূপালি ইলিশে সয়লাব বরিশালের বাজার

আমাদের নতুন সময় : 01/11/2019


বরিশাল প্রতিনিধি : নিষেধাজ্ঞা শেষে নগরীর পোর্টরোডস্থ মাছের পাইকারি বাজার ইলিশে সরগরম হয়ে উঠেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল আটটার মধ্যে ইলিশে সয়লাব হয়ে যায় নগরীর পোর্টরোডের মাছের পাইকারি বাজার। এর আগে ভোর থেকে বরিশালের বিভিন্নস্থান থেকে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও জেলেরা পাইকারি বাজারে ইলিশ নিয়ে আসতে শুরু করেন।
পাইকারী ব্যবসায়ীরা জানান, ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমকে ঘিরে নদী ও সাগরে ইলিশ শিকারে টানা ২২দিনের নিষেধাজ্ঞা ছিলো। যে নিষেধাজ্ঞা শেষে ৩০ অক্টোবর রাত ১২টা থেকেই জেলেরা মাছ শিকারের জন্য নদী ও সাগরে নেমে পরেন। যদিও এখনো সাগরের মাছ অবতরণ কেন্দ্রগুলোতে আসেনি, তবে নদীর ইলিশেই সকাল থেকে বাজার দখল করে ফেলে।
মৎস্য ব্যবসায়ী শাহাবুদ্দিন জানান, একসঙ্গে প্রথমদিনে এতো মাছ ধরা পড়ায় জেলেরা যেমন খুশি, তেমন বাজারেও মাছের দেখা মেলায় ব্যবসায়ী মহাখুশি। এভাবে ইলিশের আমদানি থাকলে সামনের দিনগুলো জেলে-ব্যবসায়ী ও শ্রমিকদের ভালো কাটবে। পাশাপাশি ক্ষতিও পুষিয়ে ওঠা যাবে।
বাজার ঘুরে দেখা গেছে, সকাল থেকেই নগরীর পোর্টরোডস্থ একমাত্র বৃহৎ মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রটিতে ক্রেতা-বিক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড়ছিলো। বিভিন্নস্থান থেকে নৌকা ও ট্রলারে করে ইলিশ নিয়ে আসে ব্যবসায়ী ও জেলেরা। সকাল থেকেই ইলিশের আমদানি বাড়তে থাকায় শ্রমিকদের কাজের চাপও টানা ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞার পর বেড়ে গেছে। বরফকল, বরফভাঙ্গা, মাছ প্যাকিংসহ সর্বত্র তারা কর্মব্যস্ত সময় পাড় করছেন। ব্যবসায়ীরা জানান, বৃহস্পতিবার ছয় থেকে নয়শ’ গ্রামের ইলিশ পাইকারি প্রতিমণ ২৪ থেকে ২৫ হাজার টাকা, এক কেজি ওজনের ইলিশ ৩০ হাজার টাকা মণ ও ১২শ’ গ্রামের ওপরে ইলিশ প্রতিমণ ৩৫ থেকে ৪০ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে।
জেলা মৎস্য অফিসের কর্মকর্তা (ইলিশ) বিমল চন্দ্র দাস জানান, নদীতে প্রচুর মাছ থাকার কারণে জেলেদের জালেও প্রচুর মাছ উঠছে। যেকারণে অল্পসময়ের মধ্যে তারা মাছ ধরে বাজারে নিয়ে আসতে পেরেছেন। বাজারগুলোতে ইলিশের সরবরাহ অনেক বেশি থাকায় দামও মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রয়েছে। ইলিশের পেটে ডিম রয়েছে এমন অভিযোগের বিষয়ে এই কর্মকর্তা বলেন, ইলিশের পেটে সারাবছর ডিম থাকে। শুধু প্রধান প্রজনন মৌসুমে ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ করা হয়। বাকী সময় ইলিশের পেটে ডিম থাকা স্বাভাবিক ঘটনা। সম্পাদনা : মুরাদ হাসান, ওমর ফারুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]