দেশে গণতন্ত্র বলতে কিছু নেই, বললেন শাহদীন মালিক

আমাদের নতুন সময় : 03/11/2019


ইউসুফ বাচ্চু : বাক স্বাধীনতা না থাকলে স্বাধীনতাই থাকবে না বলে মন্তব্য করেছেন সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. শাহদীন মালিক। গতকাল শনিবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে মৌলিক অধিকার সুরক্ষা কমিটি আয়োজিত ‘হুমকির মুখে বাকস্বাধীনতা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।
তিনি বলেন, ‘বাকস্বাধীনতা যত সংকুচিত হবে, তত দেশের স্বাধীনতা বলতে কিছু থাকবে না। আমাদের জীবন হয়ে যাচ্ছে পশুর জীবন। স্বাধীন দেশে পশুর মতো বাঁচা যায় না। এখন যতগুলো আইন প্রণয়ন হচ্ছে, প্রত্যেকটি আইনেই বাকস্বাধীনতা খর্ব হয় এমন শর্ত জুড়ে দেওয়া হচ্ছে। আমেরিকার ১৭৯১ সালের সংবিধানে বলা হয়েছে, বাকস্বাধীনতা খর্ব হয় এমন কোনো আইন সংসদে পাস করা যাবে না। অথচ স্বাধীনতার ৫০ বছর পরেও আমরা সেই গণতন্ত্রে যেতে পারিনি। আমরা রাজা-বাদশাহদের যুগে ফিরে গেছি।’
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল বলেন, ‘ভারতের বিরুদ্ধে কথা বলায় মৃত্যুবরণ করতে হবে এগুলো মানা যায় না। এমন দেশে আজ আমরা বসবাস করছি। বর্তমানে স্বাধীন দেশে পরাধীন হিসেবে বসবাস করছি। আমাদের বাকস্বাধীনতা না থাকলেও ক্ষমতাসীনদের বাকস্বাধীনতা রয়েছে। তারা যখন-তখন দেশের গণমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে যা ইচ্ছা তা বলে যাচ্ছেন। খালেদা জিয়া, ড. ইউনূস ও সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. কামালের বিরুদ্ধে তারা যা ইচ্ছা তা বলছেন। এখানে তাদের বাকস্বাধীনতা রয়েছে।’
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস বলেন, ‘চিন্তাকে প্রকাশ করতে দিতে হয়, পৃথিবী জুড়েই এর চর্চা চলছে। খাবার কম দিয়েও যদি মানুষকে কথা বলতে দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হয়, তাহলে মানুষ কথা বলাটাই বেছে নেবে।’ সম্পাদনা : ভিক্টর কে. রোজারিও




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]