• প্রচ্ছদ » আজকের পত্রিকা » সময়ের সঙ্গে জরিপগুলোতে কমছে বরিসের জনপ্রিয়তা, তবে বাড়ছে না করবিনের, ঝুলন্ত পার্লামেন্টের সম্ভাবনাই বেশি


সময়ের সঙ্গে জরিপগুলোতে কমছে বরিসের জনপ্রিয়তা, তবে বাড়ছে না করবিনের, ঝুলন্ত পার্লামেন্টের সম্ভাবনাই বেশি

আমাদের নতুন সময় : 04/11/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল : ব্রিটিশ নির্বাচন নিয়ে করা সর্বশেষ জরিপটি বলছে কনজারভেটিভ পার্টি ভোট পাবে ৩৬ শতাংশ। যা ১ মাস আগেও ছিলো ৫০ শতাংশের বেশি। লেবার পার্টির পক্ষে যাবে ২৮ শতাংশ। তবে সবচেয়ে বেশি চমক দেখিয়েছে লিবারেল ডেমোক্রেট আর ব্রেক্সিট পার্টি। দুই বিপরীত মেরুর দুই দলের পক্ষে ভোট যথাক্রমে ১৪ ও ১২ শতাংশ। অন্যান্য দলগুলোর পক্ষে সব মিলিয়ে সমর্থন ১০ শতাংশ। ডেইলি মেইল
এই জরিপটি চালিয়েছে ওআরবি ইন্টারন্যাশনাল। আরও একটি জরিপ চালিয়েছে সানডে টাইমস এর সহায়তায় ইউগোভ। এটি অনুযায়ী লেবারদের ভোট ২৭ শতাংশ, কনজারভেটিভদের ৩৯, লিবারেল ডেমোক্রেটরা বাবে ১৬ শতাংশ ভোট। ডেইলি মেইলের রোববারের সংস্করণ মেইল অন সানডে বলছে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন, বিরোধীদলীয় নেতা জেরেমি করবিন থেকে ১২ পয়েন্ট নিয়ে পরিস্কারভাবে এগিয়ে আছেন। ২০১৭ সালে নির্বাচনের ৬ সপ্তাহ আগে করা জরিপে থেরেসা মের কনজারভেটিভ পার্টি লেবারদের চেয়ে ১১ পয়েন্টে এগিয়ে ছিলো। সেই নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে সরকার গঠন করে কনজারভেটিভরা।
ডেইলি মেইলের নির্বাচনী বিশ্লেষকরা বলছেন, নির্বাচন দুই ঘোড়ার দৌঁড়ে পরিণত হলে সুবিধা পাবেস বরিস জনসনই। কারণ ব্যক্তিগত কারিশমায় করবিন তার আশেপাশেও নেই। তবে আসল ব্যবধান গড়ে দিতে পারে লিবারেল ডেমোক্রেট আর ব্রেক্সিট পার্টি। তবে বরিস বলে দিয়েছেন তিনি নাইজেল ফারাজের কট্টরপন্থী দলটির সঙ্গে কোনও ধরণের জোট করবেন না। বিশ্লেষকরা বলছেন লেবার পার্টি যদি লিবারেলদের দলে না টানতে পারে, তবে নির্বাচনে বিপদে পরার সমূহ সম্ভাবনা আছে। ব্রেক্সিট বিরোধী ভোটারদের ভোট এক্ষেত্রে ভাগ হয়ে যেতে পারে। তাদের জোটবদ্ধ করা উচিত গ্রীন পার্টি আর এসএনপিকেও।
তবে এটি প্রায় নিশ্চিত, জোটবদ্ধ হচ্ছে লিবারেল ডেমোক্রেট আর গ্রিন পার্টি। গ্রিন পার্টিই সম্ভবত একমাত্র দল, যাদের নির্বাচনঅ প্রচারণায় ব্রেক্সিট স্থান পাচ্ছে না। গ্রীন পার্টি বলছে তারা চায় পরিবেশপ্রেমিরাই ক্ষমতায় বসুক। দলটি ঘোষণা দিয়েছে, ক্ষমতায় এলে তারা যুক্তরাজ্যের সকল শিল্প কারখানা বন্ধ করে দেবে! সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]