• প্রচ্ছদ » » সামাজিক-বৈষম্য ফাঁদে আটকে ‘অনায়াস খরচযোগ্য’ বানিয়ে রেখেছি তাদের


সামাজিক-বৈষম্য ফাঁদে আটকে ‘অনায়াস খরচযোগ্য’ বানিয়ে রেখেছি তাদের

আমাদের নতুন সময় : 04/11/2019

হেলাল মহিউদ্দিন

সমাজবিজ্ঞান পড়তে-পড়াতে গেলে প্রায়ই মনে হতো ‘ঞযব ঊীঢ়বহফধনষবং’ বলে আরেকটি সামাজিক বর্গের কথা বাদ পড়েছে। এই বর্গটি সেইসব আশরাফুল মখলুকাতের সমষ্টি যারা মরে গেলে যাক, নিপাত যাক, শেষ হয়ে যাক কার কী এসে যায়’ বর্গ। ঈষধংং, পধংঃব, ংঃধঃঁং, ঢ়ড়বিৎ আলোচনাকালে সমাজবিজ্ঞানে ঃযব বীঢ়বহফধনষবং আলোচনা যুক্ত হওয়া দরকার ।
গ্যাসবেলুনের সিলিন্ডার বিস্ফোরণে সাতটি ঃযব বীঢ়বহফধনষবং শিশু মারা গেছে। আরও চারটি ঃযব বীঢ়বহফধনষবং শিশু মৃত্যুপথযাত্রী। তারা ঞযব বীঢ়বহফধনষবং বা ‘অনায়াস খরচযোগ্য’ না হলে রাষ্ট্র পরিবারগুলোকে ক্ষতিপূরণের ঘোষণা দিতো, হাসপাতালের শিশুদের চিকিৎসার দায়-দায়িত্ব এবং বেঁচে এলে ভবিষ্যৎ গড়ে দেয়ার দায়িত্ব নিতো। এই শিশুরা বা তাদের পরিবারগুলো ঞযব বীঢ়বহফধনষবং বা ‘অনায়াস খরচযোগ্য’ বলেই প্রধানমন্ত্রী দুর্ভাগা পিতা-মাতাকে কাছে ডাকবেন না, সামাজিক মাধ্যমে ঝড় ওঠবে না। পত্রিকা কমসম লিখবে, সম্পাদকীয় হবে না। টিভি টকশো, অনুসন্ধানী প্রতিবেদন, ফলো-আপ তেমন কিছু থাকবে না। খুব বেশি কথাবার্তাও হবে না কোথাও। বলা হবে ‘অ্যাক্সিডেন্ট’ অ্যাক্ট অব গড। অথচ প্রান্তিক শিশু না হয়ে সচ্ছল সমর্থ মধ্যবিত্তের বা রাজনীতিকের সন্তান একটিও যদি এভাবে মারা যেতো, সামাজিক মাধ্যমে ও ম্যাস মিডিয়ায় ঝড় বয়ে যেতো।
ঞযব বীঢ়বহফধনষবংরা যখন তখন হুটহাট মরে যায় আমাদের চোখে গুঁতা দিয়ে দেখিয়ে দিতে যে এক গভীর অন্ধকার সামাজিক- বৈষম্য ফাঁদে আটকে ‘অনায়াস খরচযোগ্য’ বানিয়ে রেখেছি তাদের। (ঞযব বীঢ়বহফধনষবং বর্গের ধারণা নির্মাণে কাজ শুরু করেছি। সমাজ বৈজ্ঞানিক গবেষণায় আগ্রহী। সমাজচিন্তায় আগ্রহী সবার সহায়তা প্রত্যাশা করছি)। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]