সাদেক হোসেন খোকা মারা গেছেন

আমাদের নতুন সময় : 05/11/2019

শাহানুজ্জামান টিটু : ১৯৭১ সালের রণাঙ্গনের মুক্তিযোদ্ধা বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকা ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি … রাজিউন)। গতকাল সোমবার বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে নিউইয়র্কে ম্যানহাটনের মেমোরিয়াল স্লোয়ান ক্যাটারিং ক্যান্সার চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার জীবনাবসান হয়। খোকার মৃত্যুর পর তার ছেলে ইশরাক হোসাইন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে তার বাবার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। কিংবদন্তি এই মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যুর খবরে দেশ-বিদেশে বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে আসে। আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল পক্ষ থেকে ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শোক জানান। এক শোক বার্তায় বিএনপির পক্ষে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, দেশের বর্তমান ক্রান্তিকালে দেশ একজন যোগ্য নেতাকে হারালো। দেশমাতৃকার মুক্তির জন্য তার অবদান চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে।
মৃত্যুশয্যায় হাসপাতালে খোকার পাশে ছিলেন তার স্ত্রী ইসমত হোসেন, মেয়ে সারিকা সাদেক ও ছেলে ইশফাক হোসেন। বাবার সংকটাপন্ন অবস্থার খবর পেয়ে ঢাকা থেকে তার বড় ছেলে ইশরাক হোসেনও নিউইয়র্কে ছুটে যান।
তার মৃত্যুর সংবাদে নিউইয়র্কের বিএনপির নেতাকর্মী, সমর্থক ও বাংলাদেশি কমিউনিটির মানুষজন ম্যানহাটনের মেমোরিয়াল স্লোয়ান ক্যাটারিং ক্যান্সার সেন্টারে জড়ো হন। সাদেক হোসেন খোকার বাসস্থান পুরান ঢাকার সর্বস্তরের মানুষ মাঝেও গভীর শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মৃত্যু সংবাদ পাওয়ার পরপরই আত্মীয়-স্বজন ও রাজনৈতিক সহকর্মীরা ছুটে যান গোপীবাগের বাসায়। সেখানে কুরআন খতম হয়। যদিও খোকার পরিবারের সদস্যরা নিউইয়ের্কে অবস্থান করছেন। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন ও যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল খোকার আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সোমবার নিউইয়র্ক সময় বাদ আসর তার প্রথম জানাজা জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সংকটাপন্ন অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের ওই হামপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন গেরিলা এ মুক্তিযোদ্ধা। খোকার জীবনের শেষ ইচ্ছানুযায়ী অন্তিম সময়েও তাকে দেশে আনা পরিবারের পক্ষে সম্ভব হয়নি। বাংলাদেশ কন্সুল্যাটে তার পাসপোর্ট না থাকায় তিনি দেশে ফিরতে পারেননি। তবে ট্রাভেল পারমিটের অনুমতি পাওয়ার পর তার মরদেহ দেশে আনার ব্যবস্থা করবে পরিবার। সরকারের পক্ষ থেকে এব্যাপারে সকল প্রকার সহযোগিতা দেয়ার আশ্বাস দেয়া হয়েছে। ক্যান্সারের চিকিৎসার জন্য ২০১৪ সালের ১৪ মে সপরিবারে নিউইয়র্ক চলে যান তিনি। তারপর থেকে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী নিউইয়র্ক সিটির কুইন্সে একটি বাসায় দীর্ঘদিন ধরে ছিলেন বিএনপির এ নেতা। সম্পাদনা : রমাপ্রসাদ বাবু




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]