• প্রচ্ছদ » আমাদের খেলা » দ্বিতীয় ম্যাচে ঘূর্ণিঝড়ের আভাস
    সিরিজ জয়ের স্বপ্ন নিয়ে দিল্লি থেকে রাজকোটে টাইগাররা


দ্বিতীয় ম্যাচে ঘূর্ণিঝড়ের আভাস
সিরিজ জয়ের স্বপ্ন নিয়ে দিল্লি থেকে রাজকোটে টাইগাররা

আমাদের নতুন সময় : 05/11/2019


এল আর বাদল : নয়াদিল্লির অসহনীয় দূষণের মধ্যেও ইতিহাসের হাজারতম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে জয় পেয়ে ভারতের আকাশে যেনো উড়ছে রিয়াদ-মুশফিকরা। সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে এই প্রথম ভারতকে হারিয়ে দারুণ একটা স্বস্তির ঘুম দিতে পেরেছেন টাইগার সেনারা। এবার তাদের লক্ষ্য থাকবে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে জয় তুলে নিয়ে সিরিজটাকে নিজেদের করে রাখা। সে লক্ষ্যেই গতকাল সোমবার দুপুরে দিল্লি ছেড়ে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টির শহর রাজকোট গেছে বাংলাদেশের টাইগারবাহিনী। গতকাল অনুশীলন করেননি মুশফিকরা। দিল্লি থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমাম।
দিল্লি ছাড়ার আগে মুশফিকুর রহিম আরও একবার জানালেন, রাজকোটও যেন হয় আমাদের ইতিহাসের সাক্ষী। আমরা চাই এক ম্যাচ হাতে রেখে ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজ জিতে ইতিহাস রচনা করতে। আগামী বৃহস্পতিবার রাজকোটের সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ ও ভারত।
তবে দ্বিতীয় ম্যাচে দুঃসংবাদও সঙ্গী হতে পারে উভয় দলের। দিল্লির ম্যাচটি দূষণে বাতিল না হলেও রাজকোটে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি মাঠে না গড়ানোর সম্ভাবনাই বেশি। গুজরাটের আবহাওয়া পূর্বাভাস বলছে, রোহিত শর্মা ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দ্বৈরথ নাও দেখা যেতে পারে। কারণ ধেয়ে আসছে প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘মহা’। সেখানকার আঞ্চলিক আবহাওয়া দপ্তরের প্রধান জয়ন্ত সরকার সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে বলেন, আগামীকাল বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার ভোরের মধ্যে ১২০ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়তে পারে ঝড়। এ মুহূর্তে সাইক্লোন ‘মহা’ দিউ থেকে ৫৮০ কিলোমিটার ও ভারাভালের উত্তর-পশ্চিম থেকে ৫৫০ কিলোমিটার কেন্দ্রে অবস্থান করছে।
এ সাইক্লোন ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করবে বলেই মত জয়ন্ত সরকারের। সেক্ষেত্রে সৌরাষ্ট্র ও দক্ষিণ গুজরাটে সামনের দিনগুলোতে প্রবল বৃষ্টিপাত হবে। বৃষ্টি থাকলে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি মাঠে না গড়ার সম্ভাবনাই বেশি। সম্পাদনা : ভিক্টর কে. রোজারিও




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]