নাঈমুল আবরারের মৃত্যু: প্রাথমিক তদন্তে অবহেলার প্রমাণ পেয়েছে পুলিশ

আমাদের নতুন সময় : 07/11/2019

লাইজুল ইসলাম : রাজধানীর রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল ও কলেজের ছাত্র নাঈমুল আবরার মৃত্যুর ঘটনায় অপমৃত্যুর মামলা তদন্তে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেতে শুরু করেছে পুলিশ। তদন্তের জন্য ইতোমধ্যে অনুষ্ঠান আয়োজনের সঙ্গে সম্পৃক্ত প্রত্যেককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মোহাম্মদপুর থানার ওসি জি জি বিশ্বাস। গতকাল বৃহস্পতিবার তিনি জানান, মামলা দায়েরের পর থেকেই ঘটনার তদন্ত শুরু হয়। অনুষ্ঠান আয়োজকদের ছাড়াও রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল ও কলেজের কয়েকজন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে বেশ গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য পাওয়া গেছে।
ওসি বলেন, বিদ্যুতায়িত হলেও আবরারের মৃত্যু হয়েছে অবহেলা জনিত কারণে। এখন পর্যন্ত প্রাথমিক তদন্তে এটাই পাওয়া গেছে। যারা এই অনুষ্ঠান আয়োজন করেছে, যারা এখানে জেনারেটর সাপ্লাই দিয়েছে, যারা এখানে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়েছে সবাইকেই আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। সামনে আরো জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ সাপ্লাইয়ে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি জব্দ করা হয়েছে। তদন্তকে পূর্ণাঙ্গ রুপ দিতে এগুলো পরীক্ষা নিরীক্ষার পর এক্সপার্টের মন্তব্য নিবো।
জি জি বিশ্বাস বলেন, আদালতে নাঈমুলের বাবা মামলা করেছেন। আদালত থেকে মামলার কপি ও নির্দেশনা এখনো পাইনি। পাওয়ার পর যথা নিয়মে ও নির্দেশনা অনুযায়ী কাজ করবো। আদালতে তার বাবা অভিযোগ করেন, তাকে ভুল বুঝিয়ে অপমৃত্যুর মামলা করানো হয়েছিলো। এই মর্মে মুচলেকা নেয়া হয়। এই অভিযোগের কথা শুনে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বলেন, যদি ১ নভেম্বর রাতে নাঈমুল আবরার মৃত্যুর পর ভুল বোঝানোর কোনো ঘটনা পাওয়া যায় তবে অবশ্যই আইনের আওতায় আনা হবে।
আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে আইনের আওতায় আনা হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে ওসি বলেন, বুধবার থেকে আইনের আওতায় আনার পক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। দোষী ব্যক্তি ছাড় পাবার কোনো সুযোগ নেই। কোনো পাওয়ারে কাজ হবে না। সত্য যেটা সেটা তদন্তে বেরিয়ে আসবেই।
গত ১ নভেম্বর প্রথম আলোর কিশোর আলোর অনুষ্ঠানে বিদ্যুতায়িত হয়ে মারা যান রেসিডেন্সিয়াল স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থী নাঈমুল। সম্পাদনা : রমাপ্রসাদ বাবু




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]