• প্রচ্ছদ » সর্বশেষ » জাবিতে আন্দোলন অব্যাহত, ব্যঙ্গাত্মক চিত্র প্রদর্শনীতে ভিসির অপসারণ দাবি


জাবিতে আন্দোলন অব্যাহত, ব্যঙ্গাত্মক চিত্র প্রদর্শনীতে ভিসির অপসারণ দাবি

আমাদের নতুন সময় : 08/11/2019

ইমদাদুল হক : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণের দাবিতে ক্যাম্পাসে ব্যঙ্গাত্মক উক্তি ও চিত্র অঙ্কিত ব্যানার নিয়ে মিছিল নিয়ে বিক্ষোভ করেছে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগরর আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।
শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু হয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিন করে নতুন কলা ভবনে গিয়ে শেষ হয়।
এসময় আন্দোলনরত শিক্ষক- শিক্ষার্থীরা জাবির ভিসি ফারজানা ইসলামের অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন অব্যহত রাখেন। ভিসি ফারজানার পদত্যাগ না করা পর্যন্ত মাঠ ছাড়বেন না বলে কঠোর হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন আন্দোলনকারীরা।
আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বলেন, ৬০ গজ লম্বা কাপড়ে উপাচার্য ফারজানা ইসলামসহ তার বিভিন্ন দুর্নীতির অপকর্ম তুলে ধরে ব্যঙ্গাত্মক চিত্রের মাধ্যমে অন্যায় ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদের ভাষা প্রকাশ করা হয়েছে। চিত্রের মাধ্যমে ভিসির দুর্নীতি, স্বেচ্ছাচারিতা, ছাত্রলীগ দ্বারা আন্দোলনকারীদের ওপর হামলাসহ সকল অনিয়ম তুলে ধরছেন তারা। একইসঙ্গে ভিসির অপসারণ চাইছেন তারা।
ব্যতিক্রমী এ কর্মসূচির ব্যপারে আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক ও ছাত্র ইউনিয়নের বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সভাপতি নজির আমিন চৌধুরী জয় বলেন, ব্যঙ্গাত্মক চিত্র অঙ্কনের মাধ্যমে আমরা ভিসির অনিয়ম স্বেচ্ছাচারিতা তুলে ধরেছি। এর আগে আমরা ৩০ গজ লম্বা কাপড়ে একইভাবে প্রতিবাদ জানিয়েছিলাম কিন্তু আমাদের সেই ক্যানভাসটি ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে। যার প্রতিবাদে এবার ৬০ গজ কাপড়ে ভিসির দুর্নীতি ও অনিয়ম তুলে ধরেছি।
আন্দোলনকারীদের নেতা শাকিলুজ্জামান বলেন, উপাচার্য পদত্যাগ কিংবা তাকে অপসারণ না করা পর্যন্ত জাবি কলঙ্কমুক্ত হবে না। তাই ছুটির দিনেও আন্দোলন চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে। উপাচার্য বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভীতিকর পরিবেশ বানিয়ে রেখেছেন। হল থেকে শুরু করে দোকান পাটও বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। কিন্তু এসব কোনো কিছুই আমাদের মনোবল ভাঙতে পারবে না।
উপাচার্য ফারজানা ইসলামের দুর্নীতির নানা তথ্য-উপাত্ত তুলে ধরে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) ও শিক্ষামন্ত্রী বরাবর লিখিত অভিযোগ পাঠানো হবে বলে জানান আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

এর আগে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ এবং ক্যাম্পাসে প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে বেলা ১১ টার দিকে আন্দোলনকারী জড়ো হতে থাকেন। পরে পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী চিত্রাঙ্কন শুরু করেন তারা।
নতুন কলা ভবনে পরবর্তী কর্মসূচি ঠিক করতে বৈঠক করেছে আন্দোলনকারীরা। অনুমতি পেলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনে (ইউজিসি) ভিসির বিরুদ্ধে দুর্নীতির তথ্য-উপাত্ত জমা দেয়া হবে জানান আন্দোলনকারীরা। সম্পাদনা : মুরাদ হাসান, খালিদ আহমেদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]