• প্রচ্ছদ » সর্বশেষ » দাতব্য ফান্ডে কারচুপি, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে ২০ লাখ ডলার জরিমানা করলো আদালত


দাতব্য ফান্ডে কারচুপি, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে ২০ লাখ ডলার জরিমানা করলো আদালত

আমাদের নতুন সময় : 08/11/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল, সাবিহা জামান : এই কারচুপির জন্য ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ২৮ লাখ ডলার ক্ষতিপূরণ দিতে পরামর্শ দিয়েছিলো অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়। এই জরিমানায় রাজি হননি মার্কিন প্রেসিডেন্ট। পরে নিউ ইয়র্কের একটি আদালত জানায়, তাদের ঘোষিত ক্ষতিপূরণই দিতে হবে ট্রাম্পকে। তারা ২০ লাখ ডলারের কথা বললে তাতে রাজি হন তিনি। শুধু তাই নয়, নিজের নামে পরিচালিত পুরো ফান্ডটি বাতিল করে, সামগ্রিক অর্থ দান করবেন অন্য ৮টি দাতব্য ফান্ডে। সিএনএন, বিবিসি
দ্য ডোনাল্ড জে ট্রাম্প ফাউন্ডেশনের অর্থ ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রচারনায় ব্যয় করেছিলেন ট্রাম্প। ট্রাম্পের রাজনৈতিক স্বার্থে তার নামের ওই দাতব্য সংস্থাটি ব্যবহৃত হতো, কৌঁসুলিদের এমন অভিযোগের পর ২০১৮ সালে ফাউন্ডেশনটি বন্ধ করে দেয়া হয়েছিলো। বিচারক স্যালিয়ান স্কারপুল্লা মামলার রায়ে বলেন, আমি ট্রাম্পকে ২০ লাখ ডলার প্রদানের নির্দেশনা দিয়েছি। এ অর্থ ৮টি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান পাবে যেগুলোর সঙ্গে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কোন সম্পর্ক নেই। নিউইয়র্কের অ্যাটর্নি জেনারেল লেটিয়া জেমস বলেন, ট্রাম্পের ৩ সন্তান ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র, এরিক ট্রাম্প এবং ইভানকা ট্রাম্পকে দাতব্য সংস্থার কর্মকর্তা ও পরিচালকদের দায়িত্ব সম্পর্কে বাধ্যতামূলক প্রশিক্ষণও নিতে হবে।
এই শাস্তির বিষয়ে ট্রাম্প বলেন, ‘আমার জানামতে আমিই ইতিহাসের একমাত্র ব্যক্তি যে ১ কোটি ৯০ লাখ ডলার দাতব্য কাজে দান করেছে। এখান থেকে কোনও খরচও নেইনি আমি। আমি আসলে নিউ ইয়র্কের রাজনৈতিক ফাঁদের শিকার। এই রাজ্যে আমি আর থাকবই না।’ এই জরিমানা বাদ দিলে এই দাতব্য ফান্ডে মাত্র ১১ হাজার ৫২৫ ডলার রয়েছে। যা অন্য দাতব্য ফান্ডে চলে যাবে। কোনও মার্কিন প্রেসিডেন্টের জন্য এই ধরণের জরিমানা একটি বিরল ঘটনা। আর এমন এক সময়ে এই জরিমানার ঘটনা ঘটেছে যখন ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসন তদন্ত চলছে। সাবেক প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের পর আর কোনও মার্কিন প্রেসিডেন্টই অভিশংসন তদন্তের মুখোমুখি হননি। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]