আজ জিতলেই ইতিহাস গড়বেন রিয়াদ-মুশফিকরা

আমাদের নতুন সময় : 09/11/2019

এল আর বাদল : ভারতের নাগপুরে আজ রোববার টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের লড়াইয়ে নামবে ভারত ও বাংলাদেশ। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের বড়কর্তা নাজমুল হাসান পাপন গতকাল শনিবার কলকাতায় গেছেন দুই দলের অঘোষিত ফাইনাল দেখতে। দিল্লিতে সিরিজের প্রথম ম্যাচেও হাজির ছিলেন তিনি। বায়ু দূষণের ওই ম্যাচে স্বাগতিকদের ৭ উইকেটে হারিয়েছিলো বাংলাদেশ। ম্যাচ জয়ের ঘণ্টা পাঁচেক আগে দিল্লিতে সাংবাদিকদের বিসিবির সভাপতি বলেছিলেন, ভারতের মাটিতে ভারতের বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকার মতো শক্তিশালী দেশও জিততে পারে না। কেবল বাংলাদেশই পারে ভারতের মাটিতে ভারতকে হারাতে। তার এ্ই মন্তব্যের প্রতিফলনও ঘটে। টাইগারদের কাছে হেরে যায় ভারত।
দ্বিতীয় ম্যাচে বিসিবির কর্তা হাজির ছিলেন না। ওই ম্যাচে বাংলাদেশকে ৮ উইকেটে হারিয়ে সিরিজ সমতায় ফিরে রোহিত শর্মার দল। আজ সিরিজ নির্ধারণী তৃতীয় ও শেষ টি টোয়েন্টি। মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদ ও মুশফিকরা ভারত বধের লক্ষ্যে প্রাণপণে লড়বেন। এই ম্যাচে জয় পেলেই ইতিহাস রচনা করবে টাইগাররা। নাগপুরে দু’দলের ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়। টাইগার সেনারা গত শুক্রবার রাজকোট থেকে নাগপুরে পৌঁছায়। গতকাল শনিবার নাগপুরে শেষবারের মতো নিজেদের ঝালাই করে নিয়েছেন টাইগাররা। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে অপরিবর্তিত একাদশ নিয়ে খেলতে পারে রাসেল ডমিঙ্গো শিষ্যরা।
বাংলাদেশের বিরুদ্ধে চলতি টি-টোয়েন্টি সিরিজে ভারতীয় লেগ স্পিনার যুজবেন্দ্র চহাল দুর্দান্ত ধারাবাহিকতা দেখিয়েছেন। এই সিরিজে এখনও পর্যন্ত তিনিই নিয়েছেন সবচেয়ে বেশি উইকেট। আজ সিরিজের শেষ ম্যাচে এক রেকর্ডের সামনে দাঁড়িয়ে চহাল। এর আগে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ভারতীয় বোলারদের মধ্যে ৫০ উইকেট নিয়েছেন মাত্র দু’জন। অফস্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন নিয়েছেন ৫২ উইকেট। আর পেসার জশপ্রীত বুমরা নিয়েছেন ৫১ উইকেট। আজ এক উইকেট নিলেই ২০ ওভারের ফরম্যাটে ৫০ উইকেট হবে লেগস্পিনার চহালের।
এখন পর্যন্ত কোনও ভারতীয় লেগ স্পিনার টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিকে ৫০ উইকেট নেননি। তাই এক উইকেট নিলেই চহাল নজির গড়বেন। আর যদি তিনি চার উইকেট নেন, তা হলে এই ফরম্যাটে ভারতের সর্বাধিক উইকেটশিকারী হয়ে উঠবেন। এখন তিনি দাঁড়িয়ে আছেন ৪৯ উইকেটে। সম্পাদনা : খালিদ আহমেদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]