লিবিয়ায় আটক ১৭১ বাংলাদেশিকে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে

আমাদের নতুন সময় : 10/11/2019

 

তরিকুল ইসলাম : শুক্রবার লিবিয়ার বাংলাদেশ দূতাবাস এ তথ্য জানিয়েছে। এরই মধ্যে সকল ধরনের আইনগত সহায়তায় পদক্ষেপ নিয়েছে বাংলাদেশ দূতাবাস। দেশটির সরকারের সহযোগিতায় বাংলাদেশ দূতাবাস উদ্ধার হওয়া সব বাংলাদেশির নিবন্ধন এরপর পৃষ্ঠা ৭, সারি
(শেষ পৃষ্ঠার পর) সম্পন্ন করেছে। এবার তাদের ফেরার পালা।
এ বিষয়ে লিবিয়ার সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এবং আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) সঙ্গেও সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখা হচ্ছে। ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে নৌকায় করে ইউরোপ যাওয়ার সময় লিবিয়ার কোস্টগার্ডের হাতে আটক হওয়া অভিবাসীদের ত্রিপলীর উপশহর জানজুর এবং আবু সেলিম ডিটেনশন সেন্টারে রাখা হয়েছে।
এর আগে গত রোববার লিবিয়াস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে পাঠানো বার্তায় বলা হয়, দেশটির অবৈধ অভিবাসন নিয়ন্ত্রণ সংস্থার সঙ্গে যোগাযোগ করে একটি ডিটেনশন সেন্টার পরিদর্শন করেছেন দূতাবাস কর্মকর্তারা। গত ৩১ অক্টোবর লিবিয়া দূতাবাসের টিম ডিটেনশন সেন্টার পরিদর্শন করেছে। এ সময় সেখানে বন্দি ৪৩ বাংলাদেশি নাগরিকের সাক্ষাৎকার নেয়া হয়। তবে আবু সেলিম ডিটেনশন সেন্টারের পার্শ্ববর্তী জাতিসংঘ সমর্থিত সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ কয়েকটি স্থানে জেনারেল খলিফা হাফতারের বাহিনী বিমান হামলা পরিচালনা করায় নিরাপত্তাজনিত কারণে ওই সেন্টার পরিদর্শন করা সম্ভব হয়নি।
সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কম সময়ের মধ্যে শহরের অপর ডিটেনশন সেন্টার পরিদর্শন করে বাংলাদেশিদের সঙ্গে দেখা করার চেস্টা করছেন দূতাবাস কর্মকর্তারা। অভিবাসী বাংলাদেশিদের বিষয়ে যেকোনো তথ্যের জন্য দূতাবাসের নম্বরে যোগাযোগ করতেও অনুরোধ করা হয়েছে। নম্বর দুটি হচ্ছে- +২১৮৯১৬৯৯৪২০২ এবং +২১৮৯১৬৯৯৪২০৭। ভূমধ্যসাগরে একটি নৌকা থেকে একসাথে ১৭১ জন বাংলাদেশি উদ্ধার বিগত কয়েক বছরের মধ্যে সবচেয়ে বড় ঘটনা। সম্পাদনা : খালিদ আহমেদ, আবদুল অদুদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]