• প্রচ্ছদ » সর্বশেষ » ঘূর্ণিঝড়ের পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রস্তুত ছিলো সশস্ত্র বাহিনী


ঘূর্ণিঝড়ের পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রস্তুত ছিলো সশস্ত্র বাহিনী

আমাদের নতুন সময় : 11/11/2019

ইসমাঈল ইমু : ঘূর্ণিঝড় বুলবুল-এর পরিস্থিতি মনিটরিংয়ের জন্য সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের তত্ত্বাবধানে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ‘প্রধানমন্ত্রীর দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সমন্বয় ও ত্রাণ তৎপরতা মনিটরিং সেল’ ২৪/৭ সচল করা হয়েছে। সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ সকল মন্ত্রণালয় এবং বাহিনীসমূহের সাথে সার্বক্ষণিক নিরবচ্ছিন্ন যোগাযোগ বজায় রেখেছে। মন্ত্রণালয়ের চাহিদার প্রেক্ষিতে বাহিনীসমূহ কর্তৃক কার্যক্রম গ্রহণের নিমিত্তে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করেছে।
সেনাবাহিনী : সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের অনুরোধে যশোর থেকে সেনাবাহিনীর ১২০ সদস্যের ১টি উদ্ধারকারী দল প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সামগ্রী ও যানবাহন নিয়ে সাতক্ষীরার শ্যামনগড়ে মোতায়েন হয়েছে। সেনাবাহিনী স্থানীয় জনগণকে আশ্রয়কেন্দ্রে স্থানান্তরে সহায়তা করেছে। এছাড়া সেনাবাহিনী কর্তৃক দুর্যোগ পরবর্তী সহায়তার জন্য ঔষধসামগ্রী, খাবার পানি, শুকনো খাবার জরুরি প্রয়োজনে বিতরণের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে।
নৌবাহিনী : উপকূলীয় এলাকাসমূহে ঘূর্ণিঝড়ের কারণে জলোচ্ছ্বাসের সম্ভাবনা থাকায় সন্দ¡ীপ, হাতিয়া ও আশপাশের প্রায় তিন শতাধিক জেলে ভাষাণচরে নির্মিত অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় গ্রহণ করে। তাছাড়া, ভাষাণচরের নির্মাণ কাজে নিয়োজিত প্রায় ৩ হাজার শ্রমিকও বর্তমানে নিরাপদ আশ্রয়ে অবস্থান করছে। নৌবাহিনীর ২৭টি জাহাজ নিরাপদ স্থানে স্থানান্তর করা হয়েছে। নৌবাহিনীর ৪টি কন্টিনজেন্ট ও চিকিৎসা সহায়তাকারী দল মোতায়েনের জন্য প্রস্তুত রয়েছে।
বিমান বাহিনী : বিমান বাহিনী সদর দপ্তরে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল-এর পরিস্থিতি মনিটরিংয়ের জন্য সার্বক্ষণিক মনিটরিং সেল সচল করা হয়েছে। বিমান বাহিনী হেলিকপ্টার/ফিক্সড উইং এয়ার ক্রাফট দুর্যোগ পরবর্তী রেকি ও যে কোন জরুরি মিশনের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। বিমান বাহিনীর একটি অগ্রগামী দুর্যোগ মোকাবেলা দল ইতোমধ্যে বরিশালে অবস্থান করছে। আবহাওয়া পরিস্থিতি অনুকূলে এলেই বিমান বাহিনী দূর্গত এলাকার ক্ষয়ক্ষতি নিরুপণের জন্য পর্যবেক্ষণ মিশন পরিচালনা করবে।
কোস্ট গার্ড : ঘূর্ণিঝড় বুলবুল পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলায় উপকূলীয় অঞ্চলের ক্ষতিগ্রস্থ বিভিন্ন এলাকায় জরুরি উদ্ধার, ত্রাণ ও চিকিৎসা সহায়তা প্রদান করছে বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড। এর আগে ঘূর্ণিঝড় বুলবুল চলাকালীন বাংলাদেশ কোস্ট গার্ডের ছোট-বড় জাহাজসহ প্রতিটি স্টেশন ও আউটপোস্টে অতিরিক্ত কোস্ট গার্ড সদস্য মোতায়নসহ জোনসমূহে কন্ট্রোলরুম স্থাপন করা হয়। এছাড়াও মোংলা অঞ্চলে জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলায় ক্ষতিগ্রস্থ উপকূলীয় এলাকায় উদ্ধার ও ত্রাণসামগ্রী নিয়ে গমণের জন্য জাহাজ প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সম্পাদনা : ভিক্টর কে. রোজারিও




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]