পশ্চিমবঙ্গে বুলবুলের আঘাতে মৃত ১০ সহায়তা করতে চেয়ে মমতাকে মোদীর ফোন

আমাদের নতুন সময় : 11/11/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল : তবে সরকারি সূত্রগুলো ৬ জনের মৃত্যুর বিষয় নিশ্চিত করেছে। দক্ষিণবঙ্গের ৯টি জেলার জেলাশাসকদের পাঠানো প্রাথমিক রিপোর্ট অনুযায়ী, প্রায় তিন লাখ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ঘূর্ণিঝড়ের তা-বে। সব মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত সাড়ে ২৯ হাজারের মতো বাড়ির পুরোপুরি বা আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে ফসলের। আনন্দবাজার, এনডিটিভি
ক্ষয়ক্ষতি এবং সাইক্লোন পরবর্তী পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে সোমবার আকাশপথে নামখানা এবং বকখালি এলাকা ঘুরে দেখবেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তিনি একটি টুইট বার্তায় জানিয়েছেন, পরিস্থিতি খতিয়ে দেখার পর প্রশাসনের কর্মকর্তাদের নিয়ে কাকদ্বীপে বৈঠকও করবেন। বুলবুলের জেরে ক্ষয়ক্ষতির মোকাবিলা করার জন্য তিনি রাস উৎসব উপলক্ষ্যে পূর্ব নির্ধারিত উত্তরবঙ্গ সফর আপাতত পিছিয়ে দিয়েছেন। ১৩ নভেম্বর তিনি উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাটে যাবেন ক্ষয়ক্ষতি দেখতে। মৃত্যু, ফসলের ক্ষয়ক্ষতি ছাড়াও, ঝড়ের দাপটে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রায় ৯৫০ টি মোবাইল টাওয়ার। যার ফলে ঝড়বিধ্বস্ত এলাকায় ব্যাপকভাবে বিঘিœত হয়েছে টেলি যোগাযোগ ব্যবস্থা। একই রকম ভাবে দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর এবং উত্তর ২৪ পরগনার সুন্দরবনের অন্তর্গত এলাকায় ঝড়ের দাপটে অনেক জায়গায় বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে এবং তার ছিঁড়ে বিদ্যুৎ সেবাও বিঘিœত হয়েছে বলে নবান্ন সূত্রে জানা গেছে।
বুলবুলের প্রভাবে পশ্চিমবঙ্গে কী পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তা জানতে রোববার সকালেই মমতা ব্যানার্জিকে ফোন করেন নরেন্দ্র মোদী। অনেকক্ষণ কথা হয় দুইজনের মধ্যে। তার পরেই টুইটারে মোদী লেখেন, ‘ঘূর্ণিঝড় এবং ভারী বৃষ্টির পর পূর্ব ভারতের একাধিক এলাকার পরিস্থিতি সম্পর্কে খোঁজ নিয়েছি। সাইক্লোন বুলবুলের তা-বে এই মুহূর্তে সেখানকার পরিস্থিতি কেমন, তা নিয়ে কথা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির সঙ্গে। কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষে সবরকম সাহায্যের প্রতিশ্রুতি দিয়েছি। সকলে সুস্থ থাকুন, নিরাপদে থাকুন, এই কামনাই করি।’ পরিস্থিতির দিকে সর্বক্ষণ নজর রেখেছেন বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহও। এ দিন টুইটারে তিনি লেখেন, ‘পূর্ব ভারতে সাইক্লোন বুলবুলের দাপটের দিকে নজর রেখেছি। কেন্দ্রীয় এবং রাজ্যস্তরের ত্রাণ সংগঠনগুলির সঙ্গে যোগাযোগ রেখেছি। মুখ্যমন্ত্রী মমতার সঙ্গেও কথা হয়েছে। সবরকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছি। প্রতিকূলতার সঙ্গে যারা লড়ছেন, তাদের মঙ্গল কামনা করি। ’ সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]