• প্রচ্ছদ » সর্বশেষ » শুধু মশার কামড়ে নয়, যৌনতার মাধ্যমে ডেঙ্গু সংক্রমণ ঘটে, জানালেন, ইউরোপের চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা


শুধু মশার কামড়ে নয়, যৌনতার মাধ্যমে ডেঙ্গু সংক্রমণ ঘটে, জানালেন, ইউরোপের চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা

আমাদের নতুন সময় : 11/11/2019

রাশিদ রিয়াজ : গত বছর পর্যন্ত চিকিৎসকরা নিশ্চিত ছিলেন গ্রীষ্ম অঞ্চলের দেশগুলোতে মশার মাধ্যমেই ডেঙ্গু রোগের বিস্তার ঘটে। কিন্তু ইউরোপের চিকিৎসাবিজ্ঞানীরা বলছেন, স্পেনের এক ব্যক্তি কখনোই গ্রীষ্মমন্ডলীয় কোনো দেশ সফর না করলেও ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হওয়ার কারণ খুঁজতে গিয়ে যৌনতার মাধ্যমেও যে এ রোগের সংক্রমণ ঘটে তা নিশ্চিত হয়েছেন। ওই ব্যক্তির সঙ্গিনী কিউবা ফিরে আাসেন এবং ওই দেশটি থেকেই ডেঙ্গু ভাইরাস বহন করে এনেছিলেন। মাদ্রিদের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সুসানা জিমেনেজ বলেন, ওই ব্যক্তির সঙ্গিনীর শরীরে ডেঙ্গু ভাইরারে উপস্থিতি ১০ দিন আগে পাওয়া যায়। সে ডোমিনিক রিপাবলিক ভ্রমণ করে স্পেনে ফিরে আসে। স্টার ইউকে/জাকার্তা পোস্ট।
সুসানা আরো বলেন, ওই ব্যক্তি ও তার সঙ্গিনীর রক্ত ও বীর্য পরীক্ষা করে ডেঙ্গু ভাইরাস পাওয়া গেছে এবং কিউবায় ছড়িয়ে পড়া ডেঙ্গু ভাইরাসের মতই তা। ওই সঙ্গিনী কিউবা যাওয়ার আগে তাদের কারো ডেঙ্গু ছিলো না। দি ইউরোপিয়ান সেন্টার ফর ডিজিজ প্রিভেনশন এন্ড কন্ট্রোল বলছে এধরনের ঘটনার প্রমাণ এই প্রথম পাওয়া গেলো যারা যৌনতার মাধ্যমে ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়ে। এরআগেও এমন ঘটনা ঘটলেও চিকিৎসকরা তা নিয়ে কোনো সন্দেহ করেননি কারণ তারা শুধু মাত্র মশার মাধ্যমেই ডেঙ্গুর বিস্তারের ব্যাপারে সুনিশ্চিত ছিলেন। গত বছর ৫০ বছর বয়স্ক এক ইতালীয় ভদ্রলোক থাইল্যান্ড ঘুরে আসার পর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে পড়েন। এবং দক্ষিণ কোরিয়ায় এক নারী থেকে আরেক ব্যক্তি যৌনতার মাধ্যমে ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর চিকিৎসাবিজ্ঞানীদের মধ্যে ভাবান্তর ঘটে।
ডেঙ্গু রোগে মানবশরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বিনষ্ট হয়ে যেতে পারে। ডেঙ্গুর কারণে হঠাৎ শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়াসহ প্রচ- শরীর ব্যথা অনুভূত হয়। একই সঙ্গে মাংসপেশী সংকোচনে রোগী অসুস্থ বোধ করে। এছাড়া শরীরে ফুসকুড়ি, নাক ও মাড়ি থেকে রক্তপাত হতে পারে। প্রতি বছর বিশে^ ৪০ কোটি মানুষ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয় এবং ৯ কোটি ৬০ লাখ মানুষ অসুস্থতায় পড়ে। সম্পাদনা: খালেদ আহমেদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]