অযোধ্যা মামলার রায়ের পর তাজ মানসিংহে নৈশভোজে অংশ নেন বিচারকরা

আমাদের নতুন সময় : 12/11/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল : সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর ভারতের জনগনের মধ্যে দেখা দেয় মিশ্র প্রতিক্রিয়া। একটি অংশ যখন ব্যস্ত ছিলো রায়ের সমালোচনায় আরেকটি অংশ ব্যস্ত ছিলো উদযাপনে। কিন্তু রায় প্রদানকারী বিচারকরা ছিলেন বেশ নিস্পৃহ। তারা এমনকি একটি ৫ তারকা হোটেলে গিয়ে ডিনারও সারেন। টাইমস অব ইন্ডিয়া, এনডিটিভি।
বিচারকদের নৈশভোজ করান প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। একটি আলোচিত রায়ের পর এভাবে নৈশভোজের বিষয়ে সমালোচনাও কম হচ্ছে না। তাজ মানসিংহের মতো এতোটা দামি রেস্টুরেন্টে নৈশভোজের অর্থপ্রাপ্তি নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। তবে বিচারকরা বলছেন, ৪০ দিনের শুনানির ক্লান্তি কাটাতেই তারা এই নৈশভোজে অংশ নেন। গগৈ এর আমন্ত্রণ নৈশভোজে অংশ নেন শরদ অববিন্দ বোবদে, ধনঞ্জয় ওয়াই চন্দ্রচুড়, অশোক ভূষণ এবং আব্দুল নাজির। মেন্যুতে ছিলো চীনা খাবার।
শনিবার ১০৪৫ পৃষ্ঠার ওই রায়ে, ভারতের শীর্ষ আদালত আদেশ দিয়েছেন বিতর্কিত ২.৭৭ একর জমি রাম মন্দির নির্মাণের জন্য একটি ট্রাস্টকে দেয়া হবে, এবং অযোধ্যায় একটি মসজিদ তৈরির জন্য কেন্দ্র বা রাজ্য সরকারকে একটি ‘উপযুক্ত’ স্থানে পাঁচ একর জমির বরাদ্দ করতে বলা হয়েছে। সংবিধানের এই বেঞ্চের নেতৃত্বদানকারী বিচারপতি রঞ্জন গগৈ আগামী ১৭ নভেম্বর অবসর গ্রহণ করবেন।
১৯৯২ সালে, উগ্র ডানপন্থীরা বাবরি মসজিদটি ভেঙে ফেলেন। তাদের বিশ্বাস ছিল , রামের ওই জন্মস্থানে একটি প্রাচীন মন্দিরের ধ্বংসাবশেষের উপর মসজিদ নির্মিত হয়েছিলো। এর পরেই সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় ৩ হাজারেরও বেশি মানুষ মারা যান। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]