• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » ‘ব্লু-অর্থনীতি বিকাশের জন্য প্রতিযোগিতা’ স্থিতিশীলতার ক্ষেত্রে বড় প্রতিবন্ধক, জানালেন প্রধানমন্ত্রী


‘ব্লু-অর্থনীতি বিকাশের জন্য প্রতিযোগিতা’ স্থিতিশীলতার ক্ষেত্রে বড় প্রতিবন্ধক, জানালেন প্রধানমন্ত্রী

আমাদের নতুন সময় : 12/11/2019

 

তরিকুল ইসলাম : গতকাল ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে তিনদিন ব্যাপী শুরু হওয়া ‘ঢাকা গ্লোবাল ডায়লগ-১৯’ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য এসব কথা বলেন শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরও বলেন, সমুদ্রসীমা ও সামুদ্রিক অর্থনীতির ক্ষেত্রে বাংলাদেশ মনে করে ‘পরস্পরের সঙ্গে তীব্র প্রতিযোগিতা বঙ্গোপসাগর বা ভারত মহাসাগরের ব্লু-অর্থনীতি বিকাশের জন্য সহায়ক নয়, বরং তা এ অঞ্চলের নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতার ক্ষেত্রে বড় প্রতিবন্ধক। এ ক্ষেত্রে প্রতিযোগিতার পরিবর্তে পরস্পরের প্রতি সহযোগিতায় ভিত্তিতে সমঝোতা করতে হবে।’ বঙ্গোপসাগর তথা ভারত মহাসাগর বিশ্ব অর্থনীতির ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ। এ অঞ্চলে সবচেয়ে বড় শত্রু দারিদ্র সেটি একসঙ্গে মোকাবেলা করতে হবে। মানুষের দারিদ্র্য দূর করে তাদের সুন্দর এবং স্বাচ্ছন্দ্যময় জীবন নিশ্চিত করা আমাদের প্রধান লক্ষ্য হওয়া উচিত।
শেখ হাসিনা বলেন, ব্লু-অর্থনীতি নিয়ে এশিয়া, প্রশান্ত মহাসাগরীয় ও ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সব দেশকে ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা চালানোর আহ্বান জানাই। সেই সঙ্গে বঙ্গোপসাগর ও ভারত মহাসাগর এলাকায় জলদস্যুতা, সশস্ত্র ডাকাতি, উপকূলবর্তী ও সামুদ্রিক এলাকায় সন্ত্রাসী আক্রমণ, মানবপাচার, অস্ত্র ও মাদক পাচারের মত নিরাপত্তা ঝুঁকি রয়েছে। এসব নিরাপত্তা ঝুঁকি নিরসনে সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে। তিনি বলেন, সাগর ও মহাসাগরের সম্পদ, পরিবেশ, বাস্তুসংস্থান সরাসরি প্রভাবিত করে এই অঞ্চলের অর্থনীতি ও নিরাপত্তাকে। সমুদ্র সম্পদের টেকসই ব্যবহার ও এর মাধ্যমে ব্লু-অর্থনীতির টেকসই উন্নয়নের জন্য সমুদ্র তীরবর্তী দেশগুলোর মধ্যে সহায়তাপূর্ণ, সৌহার্দ্যপূর্ণ, মর্যাদাপূর্ণ ও সমতাপূর্ণ সম্পর্ক আবশ্যক। শিক্ষা শান্তি ও নিরাপত্তা ছাড়া কোনো দেশ উন্নতি করতে পারে না। এ বিষয়গুলো সামনে রেখেই বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে।
‘ঢাকা গ্লোবাল ডায়লগ-১৯’ এ যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও মিয়ানমারসহ বিশ্বের ৪৫টি দেশ থেকে প্রায় ১৫০ জন প্রতিনিধি ও সব মিলিয়ে ৭০০অতিথি ডায়লগে অংশ নিয়েছেন। সম্পাদনা :খালিদ আহমেদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]