রাঙ্গাকে নি:শর্ত ক্ষমা চাইতে বললেন বিএনপির নেতারা

আমাদের নতুন সময় : 12/11/2019

 

শাহানুজ্জামান টিটু : নব্বইয়ের গণঅভ্যুত্থানের শহীদ নূর হোসেনকে ‘ইয়াবাখোর’ বলে মন্তব্য করায় জাতীয় পার্টির মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গার কঠোর সমালোচনা করেছেন বিএনপির নেতারা। তারা বলেন, নূর হোসেন গণতন্ত্রের প্রতীক। তাকে নেশাখোর বলে প্রকান্তরে রাঙ্গা গণতন্ত্রকে অপমানিতই শুধু করেননি বরং গণতন্ত্রকামী সকল মানুষকে অপমান করেছেন। তার এই বক্তব্য রুচি সম্মত হয়নি। প্রত্যাহার করা উচিত।
বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, গণঅভ্যুত্থানের একজন শহীদকে নিয়ে তিনি যে মন্তব্য করেছেন এটাকে রুচিসম্মত বলা যায় না। তিনি কেনো এধরনের কথা বলেছেন আমি জানি না। ওই গণঅভ্যূত্থানে তার জাতীয় পার্টি সরকারের পতন হওয়ার কারণেই এটা তার রাগের বহি:প্রকাশ বলে মনে করছি। অবিলন্বে তার এই বক্তব্য প্রত্যাহার করা উচিত।
বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, নুর হোসেনের বুকে পিঠে লেখা ছিলো স্বৈরাচার নিপাত যাক, গণতন্ত্র মুক্তি পাক। এই সেøাগানটা চিরদিনের জন্য একটা আবেদনযোগ্য স্লোগান। যখনই যারা স্বৈরাচার হবে, যখনই যারা গণতন্ত্রের বিপক্ষে যাবে। জীবিত হোক আর মৃতই হোক নুর হোসেন তাদের বিরুদ্ধেই একটা জলন্ত প্রদীপ। নূর হোসেন, ডা. মিলন এদের বিরুদ্ধে কিছু বলা হলে মুক্তিকামী সকল মানুষকে ফেন্সিডিলখোর, ইয়াবাখোর বলা হয় বলে আমি মনে করি। তিনি বলেন, রাঙ্গার মতো একটা লোক একাধারে শ্রমিক সংগঠনের নেতা হিসেবে শ্রমিকদের সঙ্গে তার সমঝোতা, আওয়ামী লীগের সঙ্গে ও তার নিজদলের সঙ্গেও তার সমঝোতা। এতো সমঝোতা করতে গিয়ে অন্যকে তুচ্ছতাচ্ছিল্য করার মানুষিকতা থেকে তিনি যেন সরে আসেন। অবিলন্বে তিনি পত্রিকায় বিবৃতি দিয়ে দুঃখ প্রকাশ করে নিঃশর্ত ক্ষমা চাওয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেন আলাল। সম্পাদনা : রমাপ্রসাদ বাবু




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]