রুমা নিহতের ঘটনায় মামলা আটক হয়নি বাসচালক

আমাদের নতুন সময় : 13/11/2019

ইসমাঈল ইমু : রুমা নিহতের ঘটনায় তার ভাই শামসুদ্দিন বাদী হয়ে পল্টন থানায় এই মামলাটি দায়ের করেছেন। পল্টন থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিক এই তথ্য জানিয়ে বলেন, ময়নাতদন্ত শেষে গতকাল বুধবার রুমার মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বাসচালককে এখনো আটক করা যায়নি, তবে চেষ্টা চলছে। উন্নত প্রযুক্তির মাধ্যমে তার অবস্থান শনাক্তের চেষ্টা করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে মক্কা পরিবহন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছে পুলিশ। শিগগিরই তারা গ্রেপ্তার হবে বলে পুলিশের দাবি।
রুমার স্বামী শফিকুল ইসলাম বলেন, মঙ্গলবার তার স্ত্রীর মরদেহ ময়না তদন্ত ছাড়াই হাসপাতাল থেকে বাসায় নিয়ে যান। সেখানে তাকে গোসলও করানো হয়। রাতে তাকে ফরিদপুর নেয়ার প্রস্তুতি চলছিল। এসময় পুলিশ তাদের বাসায় গিয়ে রুমার লাশ ময়না তদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপতাল মর্গে পাঠায়।
এদিকে, গতকাল দুপুর ১টার দিকে মায়ের হাত ধরে রাস্তা পারাপারের সময় যাত্রাবাড়ীতে বাসের ধাক্কায় নিহত হয়েছে মিলন (৬) নামের একট শিশু। একটি যাত্রীবাহী বাস মিলনকে ধাক্কা দিলে সে ছিটকে পড়ে যায়। দ্রুত তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপতালে নিলে চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন। দূর্ঘটনা কবলিত বাস জব্দ ও চালককে আটক করেছে পুলিশ। সম্পাদনা: খালিদ আহমেদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]