• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » ব্যাপক লড়াই ও প্রাণহানির পর ইসরায়েল-ফিলিস্তিন যুদ্ধবিরতি শুরু


ব্যাপক লড়াই ও প্রাণহানির পর ইসরায়েল-ফিলিস্তিন যুদ্ধবিরতি শুরু

আমাদের নতুন সময় : 14/11/2019

 

আসিফুজ্জামান পৃথিল : মিসরের মধ্যস্থতায় বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় ভোর সাড়ে ৩টায় এই যুদ্ধবিরতি কার্যকর হয়। রয়টার্সের এক প্রত্যক্ষদর্শী লড়াই বন্ধ হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ইসলামিক জিহাদের এক কর্মকর্তা রয়টাসর্কে জানিয়েছেন, বিচ্ছিন্নতাবাদী গেরিলাদের লক্ষবস্তু বানিয়ে হত্যা না করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে ইসরায়েলি কর্মকর্তারা। রয়টার্স, এএফপি, বিবিসি
যুদ্ধবিরতির আগে ২ দিন ব্যাপী সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে ইসরায়েল ও গাজার গেরিলারা। এই সংঘাতে গাজা উপত্যকা থেকে মোট ৪৫০টি রকেট ছোড়া হয়। আর ইসরায়েলি বিমানবাহিনী অজ¯্র হামলা পরিচালনা করে। এক হামলায় ১ পরিবারের শিশুসহ ৮ জন নিহত হন। অবশ্য ইসরায়েলের দাবি তারা এই হামলায় একজন ‘সন্ত্রাসীকে’ লক্ষ্যবস্তু বানিয়েছিলো। এই লড়াইয়ে মোট ৩৪জন ফিলিস্তিনি মারা গেছেন। আর আহত ৬৩ ইসরায়েলিকে চিকিৎসা নিতে হয়েছে। ইসরায়েলি ডিফেন্স ফোর্সের দাবি, মৃত ফিলিস্তিনিদের মধ্যে অন্তত ২৫ জন ‘সন্ত্রাসী’। বৃহস্পতিবার ইসলামি জিহাদের জেষ্ঠ্য কমান্ডার বাহা আবু আল-আতা একটি ইসরায়েলি হামলায় স্বস্ত্রীক নিহত হলে এই লড়াই শুরু হয়।
ইসলামিক জিহাদের মুখপাত্র মুহিব আল-বুরাইম মঙ্গলবার মিসরের মধ্যস্থতায় এই যুদ্ধবিরতিতে রাজি হন। এ সময়ের মধ্যে ইসরায়েল কোনও ধরণের হত্যা মিশন পরিচালনা করবে না বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বলে মিসরিয় একটি সূত্র এএফপিকে জানিয়েছে। এছাড়াও গাজা অবরোধ তুলে নেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে বলেও জানা গেছে। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]