• প্রচ্ছদ » আমাদের আনন্দ » মামলা প্রসঙ্গে ফেসবুকে শিল্পী আসিফ আকবর, আমার পোস্টে মন্তব্য করতে না পারলে ইনবক্স কিংবা ওভার ফোনে গানের জগতের কেউ সহানুভূতি দেখাতে আসবেন না প্লিজ


মামলা প্রসঙ্গে ফেসবুকে শিল্পী আসিফ আকবর, আমার পোস্টে মন্তব্য করতে না পারলে ইনবক্স কিংবা ওভার ফোনে গানের জগতের কেউ সহানুভূতি দেখাতে আসবেন না প্লিজ

আমাদের নতুন সময় : 16/11/2019

আসিফ আকবর, ফেসবুক থেকে : জেল থেকে বের হওয়ার বেশ কিছুদিন পর ইরাক থেকে একটা মেয়ের ফোন পেলাম, নাম হাজেরা। আমাকে কোন সুযোগ না দিয়ে একটানা কথা বলে গেল। জেলে যাওয়ার পর থেকে কয়েকবার পবিত্র কোরান খতম দিয়েছে, নফল রোযা রেখেছে, প্রতি ওয়াক্ত নামাজের মোনাজাতে আমার জন্য মহান আল্লাহর কাছে পানাহ্ চেয়েছে। তার ভেতরের কান্নাটা চেপে রাখতে পারছিলো না। এর কথা শুনতে শুনতে আমার চোখ ভিজে এসেছে কখন বুঝতে পারিনি। লাউড স্পীকারে কথা বলি কানের ব্যথার কারণে, পাশে যারা ছিলো তারাও আপ্লুত হয়েছে। আর কোনদিন কথা হয়নি ওর সাথে। আমাকে আমার ফ্যানরা যতটুকু ভালোবাসে, সেটার কতটুকু যোগ্য আমি নিজে বুঝি।
শিল্পী জীবনে প্রতিষ্ঠা পেয়ে বিরামহীন কাজ করে গেছি ইন্ডাস্ট্রির জন্য। এ জগতের ফেইক চেহারা বহু আগে টের পেয়েছি, তবুও সাথে থেকেছি। কারণ বদনামের ভাগীদারী আমার উপরও বর্তায়। আমি কোনদিন বিপদে কাউকে পাশে পাবো ভেবে কাজ করিনি। উনারা আসল শিল্পী, আমি বহিরাগত, এই পার্থক্যটাই মুখ্য। আমি এ্যাকশন মুডে বড়ো হয়েছি, উনারা বিনয়ী মুডে। এর মধ্যে সবাই অবশ্য পরে না, টাউটের জাহাজ জাম্বোজেট সবগুলারে চিনি। এর মধ্যে কিছু শ্রদ্ধাভাজন সিনিয়র কিছু জুনিয়র আছেন যারা আমাকে মন থেকে ভালবাসেন। তারা সবসময় আমাকে সদুপদেশ দেন, কিছু আছেন ভাঙ্গারী ভেকধারী কলিগ। সবাইকে আমি চিনি, এজন্য নিজেই ভেক ধরে বসে থাকি সময় সময়। ইন্ডাস্ট্রিতে সবাইকে বলি, প্লিজ ভুলে যাবেন না আমি কুমিল্লা থেকে এসেছি, যদি কোনদিন শয়তান না দেখে থাকেন তাইলে আমারে দেখেন। বুঝাইতেই পারলাম না, কারণ এক শয়তান আরেক শয়তানকে এ্যালাউ করে কিভাবে !!!
আমার পোস্টে মন্তব্য করতে না পারলে ইনবক্স কিংবা ওভার ফোনে গানের জগতের কেউ সহানুভুতি দেখাতে আসবেন না প্লিজ। আমি সবাইকে চিনি, আপনারা শয়তান মারতে গিয়ে মুমিন মারবেন না প্লিজ। আমি ওয়ানম্যান আর্মি ইনশাল্লাহ, কারো প্লাস্টিকের ক্রন্দন সইতে পারবো না। আসিফকে আপনারা যারা মনে করতেন খুব ভাল বোকা ছেলে, আসলে ওটা ছিলো আপনাদের সাথে আমার অভিনয়। চার্জশিট হবার পর যা বুঝার বুঝে পেয়েছি। পাঁচদিনের টেস্ট ম্যাচে গ-গোল হওয়াতে ম্যান্ডেটরী ওভারের খেলা শুরু হয়েছে। আপনারা জেতার চেষ্টায় ভেকধারী হিসেবেই সবার সাথে তাল মিলিয়ে চলুন। আমার সাথে আছে এক দশ শত হাজার লক্ষ কোটি হাজেরার দোয়া। আলহামদুলিল্লাহ, ভালবাসা অবিরাম। সম্পাদনা : সালেহ্ বিপ্লব




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]