• প্রচ্ছদ » সাবলিড » আম্পায়ার সাইদুর ও জুয়েলের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের আভিযোগ বিসিবির বিরুদ্ধে তৃতীয় বিভাগ ক্রিকেটারদের ক্ষোভ


আম্পায়ার সাইদুর ও জুয়েলের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের আভিযোগ বিসিবির বিরুদ্ধে তৃতীয় বিভাগ ক্রিকেটারদের ক্ষোভ

আমাদের নতুন সময় : 20/11/2019

রাকিব উদ্দীন : সম্প্রতি বিসিবির সাবেক সভাপতি সাবের হোসেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। সেখানে দেখা যাচ্ছে, আম্পায়ারদের ঘিরে ধরেছেন ক্রিকেটাররা। চলছে কথার তোপ। কেউ বলছেন, ‘চুরি করতে আসিনি এখানে।’ কেউ বলছেন, ‘চুরি করে ক্রিকেট খেলা হয় না।’ আম্পায়ারদের দেখিয়ে চিৎকার করে কেউ বলছেন ‘চোর, চোর, চোর।’ আম্পায়ারদের একজন জবাব দেয়ার চেষ্টা করলেন, কিন্তু ক্রিকেটারদের ক্ষোভের কাছে টিকতে পারলেন না। তাদের মাঠের বাইরে নিয়ে গেলেন ম্যাচ রেফারি। ভিডিওর ক্যাপশনে তিনি লিখেন, ‘এভাবেই ধ্বংস হচ্ছে আমাদের ঘরোয়া ক্রিকেট।’
গত রোববার ঢাকা তৃতীয় বিভাগ লিগে কামরাঙ্গীর চর স্পোর্টিং ক্লাব ও ঢাকা রয়্যাল ক্রিকেটার্সের ম্যাচের। ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে ম্যাচটির পর রয়্যাল ক্রিকেটার্সের ক্রিকেটারদের ওই ক্ষোভের ভিডিও ঘুরে বেড়াচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ভিডিওর শেষ দিকে দেখা যায়, রয়্যাল ক্রিকেটার্সের কর্মকর্তা সাব্বির আহমেদ রুবেল সামনে এগিয়ে ম্যাচ রেফারিকে বলছেন, ‘এই বাচ্চা বাচ্চা ছেলেগুলির জীবন নষ্ট করবেন না।’
এ কর্মকর্তা ম্যাচ শেষে গণমাধ্যমকে জানান তাদের ক্ষোভের কথা। তিনি বলেন, ‘ম্যাচের শুরু থেকে আমাদের বিপক্ষে একের পর এক বাজে সিদ্ধান্ত দিয়েছেন আম্পায়াররা। তবু আমরা ক্রিকেটের স্বার্থে খেলা চালিয়ে গেছি। লড়াই করেছি। জয়ের মতো অবস্থাও সৃষ্টি করেছি। কিন্তু আম্পায়ারদের জন্য পারিনি। এভাবে খেলা যায় না। আমাদের প্রতিপক্ষ ক্লাব বিসিবি কর্তাদের আশীর্বাদপুষ্ট।’
আম্পায়ারের পক্ষপাতমূলক সিদ্ধান্তগুলো তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘ওদের এক ওপেনার ৫১ করেছে, সে ২০ বা ২২ রানে আউট হয়েছিলো। নিশ্চিত স্টাম্পিং, ক্রিজের বাইরে ছিলো অনেক। আমাদের ছেলেরা আম্পায়ারকে দেখিয়েছে যে বাইরে, তবু আম্পায়ার বলেছে যে ব্যাটসম্যান ভেতরেই। আমাদের এক ওপেনার শুরুতেই তিন বাউন্ডারি মেরেছিলো। বল পায়ে লাগা মাত্র তাকে আউট দিয়েছে, যদিও আউট ছিলো না।’
আম্পায়ারের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে এ কর্মকর্তা বলেন, ‘নিচের দিকের লিগের সবাই জানে, আম্পায়ার সাইদুর কোন ধরনের আম্পায়ার। অনেক অভিযোগ আছে তার বিরুদ্ধে। আরেক আম্পায়ার জুয়েল তো পূর্বাঞ্চল ক্লাবের প্রতিনিধি হিসেবে লিগ আয়োজকদের সভায় উপস্থিত থেকেছে। ক্লাবের প্রতিনিধি আম্পায়ারের দায়িত্ব পায়, কখনও শুনেছেন? তাদের কাছ থেকে ভালো কিছু আশা করাই কঠিন।’ সম্পাদনা : খালিদ আহমেদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]