• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » প্রকাশ্যে বিইউপির নারী কর্মকর্তাকে পেটালো এক আইনজীবি, মামলা তুলে নিতে হুমকি


প্রকাশ্যে বিইউপির নারী কর্মকর্তাকে পেটালো এক আইনজীবি, মামলা তুলে নিতে হুমকি

আমাদের নতুন সময় : 20/11/2019

মাসুদ আলম : রাজধানীর পল্লবীতে মরিয়ম আক্তার তাপসী নামে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) এক কর্মকর্তাকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে এক আইনজীবীর বিরুদ্ধে। জহিরুল ইসলাম খান মন্টু নামে ওই আইনজীবী পল্লবী থানা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি। এ ঘটনায় গত ১৩ নভেম্বর তাপসীর ছোট বোন ফারদিনা হক রিনি বাদী হয়ে ছয় জনকে আসামি করে পল্লবী থানায় একটি মামলা করেন। তিনি মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজিতে (এমআইএসটি) সহকারি প্রকৌশলী হিসেবে কর্মরত। আহত তাপসী কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
রিনি বলেন, পল্লবীর ১২ নম্বর সেকশনে স্বামী ও এক মেয়ে নিয়ে বসবাস করেন তাপসী। তিনি বিইউপিতে প্রোগাম সহকারী। প্রায় এক মাস আগে তাপসীর কাছে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন মন্টু। চাঁদা না দিলে তাপসীর স্কুল পড়–য়া মেয়েকে অপহরণেরও হুমকি দেয়া হয়। এর জেরে ১৩ নভেম্বর সকালে অফিসে যাওয়ার পথে পল্লবীর ১২ নম্বর সেকশনের রাস্তায় তাপসীর পথরোধ করেন মন্টু ও তার সহযোগীরা। তারা রাস্তার মধ্যেই তাপসীর শ্লীলতাহানি করে। বাধা দিলে রাস্তায় ফেলে তাকে পিটিয়ে আহত করে। ছিনিয়ে নেয়া হয় তার মোবাইল ফোন, নগদ টাকাসহ সোনার গয়ন। তাপসীর চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় তিনি মন্টু, তারেক, রফিকুল ইসলাম রাজা, পুনম, ঝর্ণা বেগম ও জাহাঙ্গীরসহ ৫/৬ জনকে আসামি করে মামলা করেন। মামলা তুলে নিতে প্রতিনিয়ত তাকে হুমকি দেয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে গত রোববার রিনি রাজধানীর রূপনগর থানায় একটি জিডি করেছেন। মন্টু তার পূর্ব পরিচিত।
পল্লবী থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, মামলার বাদী রিনি মন্টুর সাবেক স্ত্রী। গত মে মাসে রিনি মনির মোল্লা নামে একজনকে বিয়ে করেন। পারিবারিক বিরোধ থেকে এ ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। আসামিরা জামিনে রয়েছে। সম্পাদনা : খালিদ আহমেদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]