কলকাতায় হঠাৎ ৫০০ ও ২০০০ রুপির ‘নোট বৃষ্টি’

আমাদের নতুন সময় : 21/11/2019

মরিয়ম আদরী : গত বুধবার বিকেলে ভারতের কলকাতার ২৭ নম্বর বেন্টিঙ্ক স্ট্রিটের একাট অফিসের ভবন থেকে হঠাৎ ‘নোট বৃষ্টি’ শুরু হয়। ধর্মতলার আয়কর দপ্তর থেকে ওই ভবনের দূরত্ব প্রায় ৫শ’ মিটার। ভবনের ছয়তলার জানালা দিয়ে এসব নোট উড়ে পড়তে দেখা যায়। তবে কে বা কারা এই নোট ফেলছেন সে বিষয়ে কিছু জানা যায়নি। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়া।
এদিকে, হঠাৎ নোট বৃষ্টি দেখে পুলিশ এবং আশেপাশের লোকজন হতবাক হয়ে যান। কয়েকজনের নজরে আসতেই ওই এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। ভবনটির নিচে টাকা কুড়ানোর জন্য অনেক মানুষ জড়ো হয়। পরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখার জন্য পুলিশ মূল ভবনের দরজা বন্ধ করে দিয়ে নোটগুলো কুড়াতে থাকেন। ভবনের পাশের চায়ের দোকানদার রমেশ মাহাতো বলেন, হঠাৎ করে দেখি মানুষ ছুটছে। পরে তাকাতেই দেখি ওপর থেকে টাকা পড়ছে। বেশির ভাগ টাকাই বিল্ডিংয়ের পার্কিং এলাকায় পড়ছে। সেই টাকা নিরাপত্তারক্ষীরা কুড়িয়ে নিচ্ছেন। রাস্তাতেও পড়ছে। অনেকে সেটা কুড়িয়ে নিয়েছেন। উপর থেকে এক ব্যক্তি জানালা দিয়ে টাকা ফেলছে সেটাও আমরা দেখেছি। ঘণ্টাখানেক পরে পুলিশ এসে কয়েকজনের কাছ থেকে অল্প কিছু টাকা উদ্ধার করেছে। তবে কার টাকা, কোথা থেকে এলো, সে ব্যাপারে কিছু বলতে পারব না।
কিন্তু কেন টাকা ফেলা হচ্ছিল? কারাই বা ফেললেন টাকা? খবর পেয়ে সেখানে পৌঁছায় হেয়ার স্ট্রিট থানার পুলিশ। প্রাথমিক তদন্তের পর জানা যায়, ওই বহুতল ভবনটিতে দেশটির কেন্দ্রীয় শুল্ক দফতরের (ডিআরআই) গোয়েন্দারা হানা দিয়েছিলেন। ভবনটির ৬০১ নম্বর রুমে হক মার্কেন্টাইল নামে একটি সংস্থার অফিস রয়েছে। সেই অফিসে কেন্দ্রীয় শুল্ক দফতরের গোয়েন্দারা হানা দিলে শৌচাগারের জানালা থেকে কে বা কারা টাকার বান্ডিল ফেলে দেয়। বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে এখন পর্যন্ত পুলিশ প্রায় ৩ লাখ ৭৪ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে। সম্পাদনা : রমাপ্রসাদ বাবু




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]