• প্রচ্ছদ » » একটা বিশাল জনগোষ্ঠীকে ধারণা দেয়া হচ্ছে, শিল্প সংস্কৃৃতি খারাপ এবং তারা সেটা মেনেও নিচ্ছে


একটা বিশাল জনগোষ্ঠীকে ধারণা দেয়া হচ্ছে, শিল্প সংস্কৃৃতি খারাপ এবং তারা সেটা মেনেও নিচ্ছে

আমাদের নতুন সময় : 30/11/2019

বিধান রিবেরু

বছর তিনেক আগে ইংরেজি মাধ্যম মাদ্রাসা পাস করা এক স্মার্ট যুবকের সঙ্গে কথা হয়। যুবকটি বলছিলো, সিনেপ্লেক্সে গিয়ে সে কখনো কোনো ছবি দেখেনি। দেখতেও চায় না। নিজের কম্পিউটারেও কোনো সিনেমা সে দেখে না। অন্যদেরও নিরুৎসাহিত করে সে এসব ব্যাপারে। আমি কি বলবো, ভাষা হারিয়ে ফেলেছিলাম। সম্প্রতি কারওয়ান বাজারে ওয়াজ হচ্ছে। পাশ দিয়ে যাচ্ছি। হুজুর সবাইকে কবুল করালেন কেউ যেন গান না শোনেন। এমনকি সবার মোবাইল ফোন বের করালেন, সেখানে থাকা সব গান ডিলিট করালেন। কসম কাটালেন মাহফিলে আগতদের, তারা যেন শুধু কোরআন তেলাওয়াত শোনেন, আর কিচ্ছু নয়। ভাবছি এই যে আমরা যারা লেখালেখি করি, দু’চারটা বই পড়ি, সিনেমা নিয়ে আলাপ করি, মঞ্চনাটক দেখে বিতর্ক করি, তারা কি ভেবে দেখছি, একটা বিশাল জনগোষ্ঠীকে ধারণা দেয়া হচ্ছে শিল্প-সংস্কৃৃতি খারাপ এবং তারা সেটা মেনেও নিচ্ছে। জাতির একটা অংশ যদি শিল্প-সংস্কৃতি সম্পর্কে বিরূপ মনোভাব নিয়ে চলাচল করে এবং সেটার চর্চা যদি বাড়তে থাকে তো এই জাতির মানসিক পরিপক্বতা আনার দায়িত্ব পালন করবে কীভাবে শিল্পীরা? তার উপর আবার আছে বিদেশি (পশ্চিমা ও আরব্য) সংস্কৃতিপ্রেমী। দেশী ধান্দাবাজ ও বাজারি লেখক, গায়ক, পরিচালক ইত্যাদি তো আছেই। একদিকে গণমানুষের রুচি তৈরি করার রাস্তা ক্রমশ সংকুচিত হচ্ছে, অপরদিকে প্রকৃত শিল্পীর সংখ্যাও কমছে। দেশটা উলুবন হয়ে উঠছে। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]