বাজারে বাঁধা ও ফুলকপি এখনও ৫৫ থেকে ৬০ টাকা

আমাদের নতুন সময় : 30/11/2019

লাইজুল ইসলাম : শুক্রবার সকাল মানেই বাজারে নগরবাসীর ভীড়। সপ্তাহের কেনাকাটা ছুটির দিনেই সারেন তারা। রাজধানীর মগবাজার ও কলনীবাজার ঘুরে দেখা গেছে শীতের সবজি এসেছে প্রচুর। শীত মৌসুমের সব ধরনের সবজি বাজারে আসায় দোকনিরাও সবজির পশড়া সাজিয়ে বসেছেন।
কলনীবাজার ও মগবাজারে সবজি বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি- মূলা ৫৫ থেকে ৬০ টাকা, কাঁচা টমেটো ও শিম ৫৫ থেকে ৬০ টাকা, ডেরস ৪৫ থেকে ৫০, করল্লা ৫৫ থেকে ৬০, পাকা টমেটো ৮৫ থেকে ৯০ টাকা, বাঁধা কপি ও ফুল কপি প্রতি পিস বিক্রি হচ্ছে ৫৫ থেকে ৬০ টাকা। কুমড়া ছোট ও বড় সাইজ ৫০ থেকে ৮০ টাকা, পেপে ২৫ থেকে ২৭ টাকায়।
শাক বিক্রি হচ্ছে মুট প্রতি, ৮ থেকে ১০ টাকা, পালং শাক মুট ৮ থেকে ১০টাকা, কলমি ৮ থেকে ১০টাকা, পুই ও লাল শাক ২৫ থেকে ৩০ টাকায়।
কলনীবজারের শামসু বলেন, প্রচুর সবজি বাজারে এসেছে তবে দাম একটু বেশি। কিন্তু গত সপ্তাহের চাইতে কিছুটা কম। আরো কমবে। সুমন হাওলাদার জানান, গত সপ্তাহের তুলনায় যেহেতু দাম কমেছে আগামী সপ্তাহে আরো কমে আসবে।
মগবাজারের ব্যবসায়ী ফারুক বলেন, এখনো কেনো যে দাম কমছে না তা জানি না। তবে পাইকারী বাজারে সবজির অভাব নাই। কিন্তু দাম বেশি দিয়ে কিনে আনতে হয় তাই বেশি দামেই বিক্রি করছি।
চাকরিজীবী ফখরুল বলেন, এত দামের মধ্যে আমাদের জীবন চালানো কঠিন হয়ে পরেছে।
আর রাজধানীর পাইকারী বাজার কারওয়ান বাজারে গিয়ে দেখা গেছে প্রতি পণ্যের দামই ১০ থেকে ১৫ টাকা পর্যন্ত কমে বিক্রি হচ্ছে। কারওয়ান বাজারের বিক্রেতা শহীদ বলেন, দাম মোকামে বেশি। তাই আমরাও বেশি দামে সবজি বিক্রি করছি। কারওয়ান বাজারে চালের বাজার গতসপ্তাহের মতই আছে। দুই সপ্তাহ আগে দাম বৃদ্ধির পর এখনো আর দাম বাড়েনি। গৃহিনী রেনু আক্তার বলেন, গত দুই সপ্তাহ আগে দাম বেড়েছে শুনেছি। এখন কিনতে এসে তাই দেখলাম। কোনো কিছুতেই সাধারণের জীবনের নিরাপত্তা নেই। যেভাবে ইচ্ছা চলছে।
ব্যবসায়ীরা বলছেন, এখন শুধু পোলাউয়ের চালের দাম কমার সম্ভাবনা আছে। নতুন চাল উঠবে বৈশাখে। সেপর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তবে শুল্কমুক্ত চাল আমদানি হলে দাম কিছুটা কমতে পারে।
এছাড়া, মাছের বাজারে তেমন কোনো প্রভাব পরেনি। দাম বাড়েনি বা কমেওনি। ব্রয়লার মুরগি ছোট সাইজের ১৩০ টাকা কেজি ও বড় সাইজের ২০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হয়েছে। গরু ও খাসির মাংশ আগের দামেই বিক্রি করছেন দোকানিরা। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]