ঝাঁজ বেশী দেশী পুরনো পেঁয়াজের, নতুন সরবরাহে কমছে দাম

আমাদের নতুন সময় : 01/12/2019

মেরাজ মেভিজ, লাইজুল ইসলাম : সরবরাহ কম হলেও দেশের প্রায় সব বাজারে উঠতে শুরু করেছে আগাম জাতের নতুন পেঁয়াজ। এখনও কিছুটা অপরিপক্ক থাকলেও চলতি সপ্তাহেই এই পেঁয়াজ পুরোপুরি বিক্রির উপযোগী হবে বলে মনে করছেন কৃষিবিদরা। এদিকে রাজধানীতে পাইকারি পেঁয়াজের সবচেয়ে বড় দুই বাজার শ্যামবাজার ও কারওয়ানবাজারে নতুন পেঁয়াজের প্রভাবে পড়তে শুরু করেছে সব ধরনের আমদানি করা পেঁয়াজের দাম। তবে ফরিদপুরের ভালো জাতের পুরনো দেশী পেঁয়াজের বাজার এখনও চওড়া। এর কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে শ্যামবাজারের পাইকারি ক্রেতা ও কারওয়ানবাজারের বিক্রেতা মো. সুজন এ প্রতিবেদককে বলেন, নতুন পেঁয়াজ এখনও অপরিপক্ব ছোট এবং খেতে অতটা সুস্বাদু নয়। তাই স্বল্প পরিমাণে এই পেঁয়াজ আসতে শুরু করলেও ক্রেতা সেভাবে কিনতে আগ্রহী হচ্ছেন না। তাই আমরা কিনছি না। তবে নতুন পেঁয়াজে একটা লাভ হয়েছে, গতকাল ও আজ শ্যামবাজারে সবধরনের বিদেশী পেঁয়াজের দাম কমেছে।
সরেজমিনে কারওয়ান বাজারও ও শ্যামাবাজার ঘুড়েও দেখা যায়, শ্যামবাজারে দেশী নতুন পেঁয়াজের সরবরাহ একেবারেই কম। দাম ১৪০-১৫০ টাকা, যা খুচরায় সর্বোচ্চ ১৬০ টাকা। তবে ফরিদপুরি পুরনো পেঁয়াজের বাজার এখরও চওড়া। এই পেয়াজই বিকোচ্ছে সবচেয়ে বেশী দামে। ১৯০-১৯৮ টাকায় এই পেঁয়াজ কিনে ২০০-২১০ টাকায় কারওয়ানবাজারে বিক্রি করছেন পাইকারি বিক্রেতারা। যা খুচরায় ২৩০-২৪০ টাকায় কিনছেন ক্রেতা।
ব্যবসায়ীদের ভাষ্য, আগাম জাতের নতুন পেঁয়াজ বাজারে আসায় দাম কমতে শুরু করেছে। আর কৃষি বিভাগের হিসাব অনুযায়ী, ডিসেম্বরেই জেলায় প্রায় এক লাখ মেট্রিক টন নতুন পেঁয়াজ উঠবে। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী পাবনা সদর, সুজানগর ও সাঁথিয়া উপজেলায় আগাম জাতের পেঁয়াজ চাষ হয়। চলতি বছর এ তিন উপজেলার বাইরে ঈশ্বরদী, বেড়া, আটঘরিয়া ও চাটমোহর উপজেলার বিভিন্ন মাঠে আগাম জাতের পেঁয়াজ চাষ করা হয়। সব মিলিয়ে চলতি মৌসুমে জেলায় প্রায় ৯ হাজার হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ রোপণ করা হয়। এ বছর উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ১ লাখ ২৬ হাজার মেট্রিক টন।
তবে ক্রেতাদের জন্য সুসংবাদ আছে আরও। নতুন পেঁয়াজের প্রভাবে গত দুই দিনে রাজধানীসহ দেশের সব বাজারে কমেছে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম। সবচেয়ে কমছে চায়নার পেঁয়াজ। যা শ্যামবাজারে ৯০, কারওয়নবাজারে ১০০ হয়ে খুচরায় দাঁড়াচ্ছে ১১০ টাকায়। পাকিস্তানি ও মিশরের পেঁয়াজ ১১০-১৩০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। যা দিন দুয়েক আগেও ছিল ১৬০ টাকা। তবে বার্মার পেঁয়াজ এখনও সবচেয়ে বেশী। রাজধানীর শ্যামবাজার, কারওয়ানবাজারও খুচরা বাজারে যার দাম ১৬০-১৭০-১৮০ টাকা। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]