• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » ঢাবিতে বর্ণিল আয়োজনে পর্দা উঠছে ১৪তম কেন্দ্রীয় বার্ষিক নাট্যোৎসবের


ঢাবিতে বর্ণিল আয়োজনে পর্দা উঠছে ১৪তম কেন্দ্রীয় বার্ষিক নাট্যোৎসবের

আমাদের নতুন সময় : 01/12/2019

ঢাবি প্রতিনিধি : “এখানে জীবন ফুরায় না, কেননা এখানে ভালোবাসা অফুরান” এই স্লোগানকে ধারণ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের থিয়েটার এন্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগ আয়োজন করতে যাচ্ছে বিভাগের ‘রজত জয়ন্তী’ ও ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ১৪তম কেন্দ্রীয় বার্ষিক নাট্যোৎসব-২০১৯’।
আজ ২০১৯ রোববার সন্ধ্যা ৬টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) মিলনায়তনে এই মহা নাট্যযজ্ঞের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। বিভাগের চেয়ারম্যান ড.আহমেদুল কবিরের সভাপতিত্বে উৎসবের উদ্বোধন করবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। প্রধান অতিথির আসন অলঙ্কৃত করবেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী শহীদুল্লাহ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রো-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ এবং কলা অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. আবু মো. দেলোয়ার হোসেন।
১০ দিন ব্যাপী এই নাট্যোৎসবে থিয়েটার এন্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষক ও স্নাতক সমাপনী সেমিস্টারের শিক্ষার্থীদের নির্দেশিত ১৭টি নাটক মঞ্চস্থ হবে। ১৭টি নাটকের ৮টি নাটক প্রদর্শিত হবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মিলনায়তনে এবং বাকি নাটক নাটম-ল মিলনায়তনে মঞ্চস্থ হবে?
০১-০৪ ডিসেম্বর টিএসসি মিলনায়তনে প্রথম পর্বের নাটক শুরু হবে সন্ধ্যা ৬টা থেকে। প্রতিদিন থাকছে ২টি করে নাটক। ১লা ডিসেম্বর দিনের প্রথম প্রদর্শনীতে থাকছে মুনীর চৌধুরীর রচনা এবং ফারিজ খানের নির্দেশনায় নাটক ‘একতালা দোতালা’। দিনের দ্বিতীয় প্রদর্শনীতে জহির রায়হানের রচনা এবং সৈয়দ আল মেহেদি হাসানের নির্দেশনায় নাটক ‘একুশের গল্প’। ২ ডিসেম্বর দিনের প্রথম প্রদর্শনীতে থাকছে দারিও ফো এর রচনা এবং রুদ্র সাওজালের অনুবাদ ও নির্দেশনায় নাটক ‘মৃত্যু আসে ছদ্মবেশে’। দিনের দ্বিতীয় প্রদর্শনীতে হোরেস হোলির রচনা এবং মোসা. সায়মা আক্তারের অনুবাদ ও নির্দেশনায় নাটক ‘হিজ লাক’। ৩ ডিসেম্বরে দিনের প্রথম পরিবেশনায় আহম্মেদ রাউফুর রহিমের রচনা ও নির্দেশনায় নাটক ‘ব্লাড টেলিগ্রাম’। দিনের দ্বিতীয় প্রদর্শনীতে আহমদ সফা কর্তৃক রচিত ‘কবি ও সম্রাট’ অবলম্বনে মো. ওয়ালী হোসেন এমদাদের নাট্যরূপ ও নির্দেশনায় নাটক ‘কবি ও সম্রাট’।
৪ ডিসেম্বর হাসান আজিজুল হক রচিত এবং সোনিয়া পারভিন অনা নির্দেশিত দিনের প্রথম নাটক ‘লালদিঘিতে জ্যোৎস্না’। আর দিনের দ্বিতীয় অর্থাৎ উৎসবের প্রথম পর্বে টিএসসির শেষ প্রদর্শনীতে থাকছে ফেরেঞ্চ মোলনারের রচনা এবং ফারজিয়া হল ফারিনের অনুবাদ ও নির্দেশনায় নাটক ‘ছদ্মবেশ’। ৫-১০ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটমন্ডল মিলনায়তনে উৎসবের দ্বিতীয় পর্ব শুরু হবে। ৫ ডিসেম্বর নাটমন্ডলে দিনের প্রথম প্রদর্শনীতে থাকছে গ্যারি মাইকেল ক্লুগার রচিত এবং অদিতি চ্যাটার্জির অনুবাদ ও নির্দেশনায় নাটক দ্য হোস্টেজ’। দিনের দ্বিতীয় মঞ্চায়নে থকছে রঞ্জন বন্দোপাধ্যায়ের রচনা অবলম্বনে মো. সানজিদুল ইসলামের নাট্যরূপ ও নির্দেশনায় নাটক ‘কাদম্বরী’। ৬ ডিসেম্বর নাটমন্ডলে দিনের প্রথম প্রদর্শনীতে থাকছে স্যামুয়েল বেকেট রচিত এবং মো. সোহেল রানা কর্তৃক নির্দেশিত নাটক ‘হ্যাপি ডেইজ’। দিনের দ্বিতীয় মঞ্চায়নে এরিক কোবল রচিত, আব্দুর রাজ্জাকের অনুবাদ এবং মো. আখলাকুজ্জামান অনিকের নির্দশনায় নাটক ওয়েটিং ফর দ্য ম্যাটিনি’। ৭ ডিসেম্বর থাকছে জনপ্রিয় নাট্যকার জেফ গডের রচনা এবং শেখ আব্দুল কাইয়ুমের অনুবাদ ও নির্দেশনায় নাটক ‘মার্ডার বাই মিডনাইট’। দ্বিতীয় প্রদর্শনীতে থাকছে আন্তন চেকভের ‘ সোয়ান সঙ’ অবলম্বনে মমতাজউদ্দীন আহমেদ ও রাম কৃষ্ণ সাহার ভাবনা ও নির্দেশনায় নাটক ‘ সোয়ান সঙ’। ৮ ডিসেম্বর নাটমন্ডলের প্রথম প্রর্দশনীতে থাকছে জেমস থালমার্স এর রচনা এবং মোসা. তাসলিমার অনুবাদ ও নির্দেশনায় নাটক ‘নির্দয় পারিশ্রমিক’। দিনের শেষ অর্থাৎ দ্বিতীয় প্রদর্শনীতে থাকছে মো. আমিনুর রহমানের রচনা ও নির্দেশনায় নাটক ‘ফ্রম লাভ টু রেভ্যুলিউশন’। ৯-১০ ডিসেম্বর থাকছে বিভাগের চেয়ারম্যান ড. আহমেদুল কবীরের নাট্যভাবনা, পরিকল্পনা ও নির্দেশনায় নাটক ‘রসপুরাণ’। ১০ ডিসেম্বর ‘রসপুরাণ’ মঞ্চায়নের মধ্য দিয়ে ১০ দিন ব্যপি এই নাট্যযজ্ঞানুষ্টানের পর্দা নামবে। সম্পাদনা : সমর চক্রবর্তী, আবদুল অদুদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]