• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে বিআরটিএর নানা উদ্যোগ আগামী বছর ১ লাখ ৩০ হাজার চালককে প্রশিক্ষণের উদ্যোগ


সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে বিআরটিএর নানা উদ্যোগ আগামী বছর ১ লাখ ৩০ হাজার চালককে প্রশিক্ষণের উদ্যোগ

আমাদের নতুন সময় : 02/12/2019

 

শাহানুজ্জামান টিটু : সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। জন্মের পর থেকে সুষ্ঠ সড়ক পরিবহন ব্যবস্থাপনা, শৃঙ্খলা ও সড়ক নিরাপত্তায় নানা উদ্যোগ, জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম ও কর্মসূচি নিয়ে কাজ করছে রাষ্ট্রীয় এই প্রতিষ্ঠানটি। রোড সেফটি শাখা গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। সড়ক দুর্ঘটনা রোধে চলতি বছর দক্ষ চালক তৈরির জন্য ১ লাখ ২ হাজার ১৭৯ জনকে প্রশিক্ষণ দিয়েছে। দক্ষ চালক তৈরির লক্ষ্যে ২০২০ সালের মধ্যে আরো ১ লাখ ৩০ হাজার জনকে প্রশিক্ষণের পরিকল্পনা নিয়েছে।
বি আরটিএ’র রোড সেফটি বিভাগ সূত্র জানায়, রাজধানী ও সারাদেশে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে সড়ক নিরাপত্তা ও গণসচেতনতা বৃদ্ধিমূলক শ্লোগান-সম্বলিত স্টিকার, লিফলেট ও পোস্টার গাড়িচালক, যাত্রী, পথচারী ও সড়ক ব্যবহারকারীদের মধ্যে নিয়মিতভাবে বিতরণ করা হচ্ছে। সড়ক নিরাপত্তার বিষয়টি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুলের পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্তির জন্য শ্রেণি ও বয়স ভিত্তিক পাঠ্যসূচিতে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। সড়ক দুর্ঘটনারোধে জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়কের ওপর অবস্থিত হাট-বাজার ও বাণিজ্যিক স্থাপনা অপসারণের জন্য সকল জেলা প্রশাসন ও পুলিশ বিভাগকে অনুরোধ করা হয়েছে। মহাসড়কে বাসের গতিসীমা ৮০ কি.মি. এবং ট্রাকের গতিসীমা ৬০ কি.মি. বেধে দেয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে ২৫৬ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী ও উপ-পরিচালক (ইঞ্জিঃ)-কে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে।
এ ব্যাপারে বি আরটিএ পরিচালক (রোড সেফটি) শেখ মো. মাহবুব-ই-রব্বানী বলেন, আমরা মানুষের মধ্যে সচেতনা ও সড়কের নিরাপত্তা ফেরাতে নানা কর্মসূচি ও উদ্যোগ নিয়েছি। আর উদ্যেগের ফলে ইতিমধ্যে সফলতা আসতে শুরু করেছে। এখন আগের চেয়ে অনেক বেশি মানুষের মধ্যে আইন মানার প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এছাড়া অধিকাংশ (প্রায় ৯৫ শতাংশ) মোটরসাইকেল আরোহী ও যাত্রী হেলমেট ব্যবহার করছেন। পেশাজীবী গাড়িচালকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়নকালে এ প্রশিক্ষণ গ্রহণ বাধ্য্যতামূলক করা হয়েছে। সম্পাদনা : খালিদ আহমেদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]