• প্রচ্ছদ » স্ক্রল » বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে বিজয়ের ৪৮ বছরে মানুষের মাথাপিছু আয় চার হাজার ডলার থাকতো বললেন ড. অনুপম সেন


বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে বিজয়ের ৪৮ বছরে মানুষের মাথাপিছু আয় চার হাজার ডলার থাকতো বললেন ড. অনুপম সেন

আমাদের নতুন সময় : 03/12/2019

আশিক রহমান : শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. অনুপম সেন বলেছেন, একাত্তর বা তারও আগে আমাদের সঙ্গে যে অন্যায়-অবিচার করেছিলো পাকিস্তানিরা, তা থেকে আমরা বের হয়ে আসছি। দুর্নীতি দমনে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করেছে সরকার। পাকিস্তানি বাহিনীর এদেশীয় দোসর রাজাকার-আলবদর-আলশামসদের বিচার হয়েছে। বিচার পাচ্ছে স্বজনহারা মানুষ। এটা বিরাট বিষয়। রাজাকারদের এদেশে বিচার হবে কখনো কি কেউ ভেবেছিলো? ভাবেনি। কিন্তু সেটা সম্ভব হয়েছে আওয়ামী লীগ তথা বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার সরকার ছিলো বলেই। আমরা বিচারবিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত করেছি, সংসদের কার্যকারিতাও নিশ্চিত করেছি বিজয়ের এই ৪৮ বছরে। আগে সংসদ চলতো রাবার স্ট্যাম্পের মতো, এখন সংসদ সংসদের মতোই চলে। সংসদীয় নির্বাহী কমিটিগুলোও কাজ করে স্বাধীনভাবে। আগে কমিটিগুলো ঠিকমতো কাজ করতো না, এখন সব ঠিকঠাক মতো করে চলে। আওামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকাকালে নির্বাহী কমিটিগুলো গঠন করেছিলো, যা বাংলাদেশের গণতন্ত্র প্রাতিষ্ঠানিকতা পেতে ব্যাপক সহায়ক ভূমিকা রাখছে।
তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু যদি আজকে বেঁচে থাকতেন, বাংলাদেশের মানুষের মাথাপিছু আয় এখন তিন থেকে চার হাজার ডলারের মধ্যে থাকতো। কারণ তিনি যেভাবে আমাদের অর্থনীতিকে সংগঠিত করে নিয়ে এসেছিলেন, তা ছিলো অল্পকথায় অসাধারণ। সাধারণ থেকে অসাধারণ হয়ে উঠা জাতির জনকের পক্ষেই কেবল হাজারো প্রতিকূলতা মোকাবেলা করে উন্নয়ন, অগ্রগিত ও অর্জন সম্ভব। বর্তমান আওয়ামী লীগ তথা চৌদ্দদলীয় সরকার টানা দ্বিতীয়বার দেশ পরিচালনা করছে। আমরা এখন নিজের পায়ে হাঁটতে শিখেছি। বাংলাদেশ এখন স্বনির্ভর। দেশকে পরনির্ভরশীলতার হাত থেকে বের করে আনা, দেশকে স্বয়ম্বর করাই হচ্ছে আমাদের সবচেয়ে বড় অর্জন। জিডিপিতে শিল্পের অবদান এতোদিন ছিলো ১০ শতাংশ, সেটা এখন ৩০ শতাংশ ছাড়িয়ে গেছে। আমাদের রপ্তানি আয়ও এখন ৩৪ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে গেছে। এটা অসাধারণ অর্জন, একটা সময় তো এমনটি কল্পনাও করা যেত না। প্রকৃত অর্থেই আমরা এখন স্বাধীন। স্বাধীনতার সুফল ভোগ করছে মানুষ।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]