• প্রচ্ছদ » সাবলিড » বাহাত্তরে জেলে থাকা ৩৭ হাজার রাজাকারের তালিকা আগে প্রকাশের দাবি ডা. এম এ হাসানের


বাহাত্তরে জেলে থাকা ৩৭ হাজার রাজাকারের তালিকা আগে প্রকাশের দাবি ডা. এম এ হাসানের

আমাদের নতুন সময় : 04/12/2019

আশিক রহমান : মুক্তিযুদ্ধ গবেষক ডা. এম এ হাসান বলেছেন, বাহাত্তর সালে ৩৭ হাজার রাজাকারের তালিকা হয়েছিলো, সেই তালিকাটা আগে প্রকাশ করা উচিত। রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন জায়গায় এই তালিকা রয়েছে। যে ৩৭ হাজার রাজাকারকে জেলে ঢুকানো হয়েছিলো, বঙ্গবন্ধুর আদেশের তালিকাটা কোথায়, আদৌ আছে কী, নাকি নেই, না থাকলে তা গেলো কোথায়, তার একটি সুস্পষ্ট ব্যাখ্যা আসা প্রয়োজন। এটা কোনো ছেলেখেলার বিষয় নয়। ৩৭ হাজার রাজাকারকে জেল দেয়া হয়েছিলো, জিয়াউর রহমান তাদের মুক্ত করেছিলেন। একইসঙ্গে শান্তি কমিটির তালিকাটাও প্রকাশ করা দরকার। শান্তি কমিটিই হলো রাজাকার তৈরির মাস্টার। রাজাকারদের অবস্থান শান্তি কমিটি, আলবদর-আল শামসদের নিচে।
তিনি আরও বলেন, রাজাকারদের তালিকা প্রকাশের উদ্যোগ ভালো। তবে তালিকা প্রকাশ করার পর দেশে আর কোনো রাজাকার নেইÑ এমনটি কখনোই বলা যাবে না। রাজাকার নেই বললে একটা বিচারহীনতার সংস্কৃতি প্রতিষ্ঠিত হবে। কেননা দেশে রাজাকারের সংখ্যা ৫০ হাজারেরও বেশি। এই ৫০ হাজার রাজাকারদের সন্তান-সন্ততি, পরিবারের লোকজন যেন কোনো গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দলে আশ্রয় নিতে না পারে। কোনো লাভজনক পদ ও নীতিনির্ধারণী জায়গায় যেন থাকতে না পারে, সেটিও রাষ্ট্রকে খেয়ালে রাখতে হবে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]