৮৩ দিন পর ২৮ ডিসেম্বর খুলছে বুয়েট

আমাদের নতুন সময় : 04/12/2019

 

আসিফ কাজল : আন্দোলনকারীদের তৃতীয় ও সর্বশেষ দাবিটি মেনে নেয়ায় একাডেমিক কার্যক্রমে আর বাধা থাকছে না বলে জানিয়েছেন বুয়েট প্রশাসন ও শিক্ষার্থীরা। গত ৬ অক্টোবর বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ^বিদ্যালয়ে (বুয়েট) তড়িৎ প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা পিটিয়ে হত্যা করে। পরদিন আবরার হত্যার বিচারের দাবিতে রাস্তায় নামে শিক্ষার্থীরা। এরপর থেকেই কার্যত অচল রয়েছে বুয়েট ক্যাম্পাস। দীর্ঘ তিনমাস পর আগামী ২৮ ডিসেম্বর টার্ম ফাইনাল পরীক্ষার মধ্য দিয়ে বুয়েটে শুরু হচ্ছে একাডেমিক কার্যক্রম। গতকাল মধ্যরাতে বুয়েট ওয়েবসাইটে সাংগঠনিক ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধে বিধিমালা প্রণয়ন করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।
বুয়েট ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক মিজানুর রহমান এ বিষয়ে বলেন, আমরা একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছিলাম। সেই কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে র‌্যাগিংয়ের শাস্তিকে আমরা তিনটি ক্যাটাগরিতে ভাগ করে নীতিমালা প্রণয়ন করেছি। র‌্যাগিংয়ের কারণে কারও মৃত্যু হলে জড়িতদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিষ্কার করা হবে, কর্তৃপক্ষ মামলা করবে। এছাড়া র‌্যাগিংয়ের মাত্রা অনুসারে হল থেকে স্থায়ী বহিষ্কার, সাময়িক বহিষ্কারসহ সতর্ক করার বিধান করা হয়েছে।
এর আগে আবরার হত্যা মামলায় জড়িতদের স্থায়ী বহিষ্কার, রাগিং এর ঘটনায় অভিযুক্তদের বিচার এবং সাংগঠনিক ছাত্ররাজনীতি ও র‌্যাগিংয়ে শাস্তির নীতিমালা প্রণয়নের তিন দফা দাবি জানায় আন্দোলনকারীরা। যার প্রেক্ষিতে গত ২১ নভেম্বর আবরার হত্যায় জড়িত থাকায় ২৬ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কার করে বিশ^বিদ্যালয় প্রশাসন। গত ৩১ অক্টোবর র‌্যাগিংয়ে জড়িত থাকায় আহসানউল্লাহ ও সোহরাওয়ার্দী আবাসিক হলের ২৬ ছাত্রকে সাজা দেয় বিশ^বিদ্যালয় প্রশাসন। যার মধ্যে ৯ ছাত্রকে হল থেকে আজীবন বহিষ্কার ও একাডেমিক কার্যক্রমসহ দু’টি হলের ১৭ শিক্ষার্থীকে হল থেকে বিভিন্ন মেয়াদে বহিষ্কার করা হয়। এছাড়াও সতর্ক করা হয় আরও চারজন ছাত্রকে। অধিকতর তদন্তের জন্য তিতুমীর হলের রাগিং এর বিচার পিছানো হয়।
এ বিষয়ে আবরার ফাহাদ হত্যায় আন্দোলনের অন্যতম মুখপাত্র ও বুয়েট চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী অন্তরা তিথি বলেন, ২৮ ডিসেম্বর সম্ভাব্য পরীক্ষার দিন উল্লেখ করে আমরাই প্রস্তাব দিয়েছিলাম। আমাদের তিন দফার সর্বশেষ দাবিটি প্রশাসন মেনে নেওয়ায় পরীক্ষায় অংশগ্রহণের প্রস্তুতি নিচ্ছে ছাত্র-ছাত্রীরা বলে তিনি জানান। সম্পাদনা : ভিক্টর কে. রোজারিও




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]