মিরপুরে জোড়া খুন, সন্দেহের তীর পালিত ছেলের দিকে

আমাদের নতুন সময় : 05/12/2019

 

মাসুদ আলম : রাজধানীর মিরপুর-২ নম্বর সেশনের একটি বাসা থেকে উদ্ধার করা বৃদ্ধা রহিমা বেগম ও গৃহকর্মী সুমি আক্তারকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের চিকিৎসক কে এম মাঈনুদ্দিন। ময়নাতদন্ত শেষে বুধবার বিকেলে এ তথ্য জানান তিনি।
তিনি জানান, ময়নাতদন্তে দেখা গেছে গৃহকর্মীকে গলা, নাক ও মুখ চেপে শ্বাসরোধ করা হয়েছে। আর বৃদ্ধাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হলেও তার মাথায়, কাঁধে ও হাতে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।
এদিকে হত্যাকা-ের ঘটনায় নিহতের মেয়ে রাশিদা বেগম বাদি হয়ে বুধবার সকালে অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে মিরপুর থানায় একটি মামলা করেন।
তদন্ত সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা জানান, সোহেল মাদকাসক্ত। কয়েকদিন ধরে রহিমার কাছে টাকা চায় সোহেল। কিন্তু রহিমা তাকে টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানান। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়াও হয়। তাই ধারণা করা হচ্ছে এরই জেরে সোহেল তাদের হত্যা করেছে।
মিরপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সৈয়দ আকতার হোসেন বলেন, হত্যার ঘটনায় ওই বৃদ্ধার পালিত পুত্র সোহেলকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদে বেশ কিছু তথ্য পাওয়া গেছে। একাধিক বিষয়কে সামনে রেখে তদন্ত চলছে। তবে বাসা থেকে কোন কিছু লুট হয়নি। মঙ্গলবার রাতে মিরপুর ২ নম্বর সেকশনের ‘এ’ ব্লকের ২ নম্বর সড়কের ৯ নম্বর বাড়ির চতুর্থ তলা থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। স্থানীয়দের কাছে শুনেছি এখানে কিছু বহিরাগত লোকের আনাগোনা ছিলো। তা কী কারণে এখানে আসতো তা জানার চেষ্টা চলছে।
নিহতের সংসার কীভাবে চলতো জানতে চাইলে পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, স্থানীয়রা অনেকেই অনেক কথা বলছেন। সোমবার রহিমার বাসায় গৃহকর্মী হিসেবে কাজ নেয় সুমি। তার গ্রামের বাড়ি পিরোজপুরে। রহিমার স্বামী থাকলেও তার সঙ্গে কোন সম্পর্ক ছিলো না। তিনি যশোরে থাকেন।
রাশিদা বেগম জানান, তার মা এই বাসায় একা থাকতেন। তাকে দেখাশোনার জন্য সোহেল নামে একটি ছেলে মায়ের সঙ্গে থাকতো। আমার মা হার্টের সমস্যা ও ডায়াবেটিকের রোগী। মঙ্গলবার বিকেলে সোহেল ফোন দিয়ে জানায় মা ও গৃহকর্মীকে কারা যেন কুপিয়ে হত্যা করেছে। রাশিদা বেগম তার পরিবার নিয়ে নারায়ণগঞ্জে বসবাস করেন। সম্পাদনা : কাজী নুসরাত




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : info@amadernotunshomoy.com