• প্রচ্ছদ » » গরিব মানুষেরা সাম্যের আশায় ন্যায়বিচার চায়


গরিব মানুষেরা সাম্যের আশায় ন্যায়বিচার চায়

আমাদের নতুন সময় : 07/12/2019

মুসা কলিম মুকুল

বাংলার বুকে যতোকাল গরিবী থাকবে, বৈষম্য থাকবে, ততোকাল মাদক সম্রাটেরা কয়েক পুরিয়া ইয়াবা পরিবহনের লোক সহজেই খুঁজে পাবে। এসব গরিব মানবেতর পরিবহনকারীদের মধ্যে কেউ কেউ ক্রসফায়ারে মারাও পড়বে। আর শিক্ষিত বাঙালি বিচার প্রতিষ্ঠার সৌন্দর্যে মাঝে মাঝে সুখ পাবে। জাঁহাপনা মাদকসম্রাটরা আর তাদের সাম্রাজ্য স্বস্তিতে থাকবে। দুর্ঘটনার দোষ আলগোছে পরিবহন শ্রমিকদের বেপরোয়াপনার ঘাড়ে চাপলে নগরপতি, শিল্পপতি, ঠিকাদার, ইঞ্জিনিয়ার, আইন প্রয়োগকারী আর বাস সিন্ডিকেটওয়ালারা বেশ স্বস্তিতে থাকতে পারবেন।আমাদের গ্রামের আব্বাস ড্রাইভার যদি ব্যক্তিগত উদ্যোগে সুশীল হয়ে যান, যদি স্টপেজগুলোতে আধা মিনিটের জায়গায় ছয় মিনিট ধরে বাস না দাঁড় করিয়ে রাখেন, যদি সময় কাভার করার জন্য অপ্রশস্ত, অবিন্যস্ত ও খানাখন্দে ভরা রাস্তায় তাড়াহুড়া না করেনÑ তার জেল-ফাঁস খুব একটা হবে না। কিন্তু মালিকের পাওনা মেটাতে নিত্যই তার ঘটিবাটি বেচতে হবে। দুদিন পর তিনি আমার বদনা-বালতি সরাবেন। তবুও অবশেষে বেপরোয়া তাকে হতেই হবে। তার জেল-ফাঁস হবে। শিক্ষিত বাঙালির সুখ লাগবে বিচারিক সৌন্দর্যে। মাননীয় এবং মহোদয়রাও স্বস্তিতে থাকবেন। গরিব মানুষেরা সাম্যের আশায় ন্যায়বিচার চায়। আর ন্যায়বিচার তাদেরই উপর প্রয়োগ হয় যুগে যুগে। এসব ন্যায়বিচার দেখে শিক্ষিতের অঙ্গে পুলকের ঝলক লাগে, মাননীয়দের স্বস্তি চিরস্থায়ী হয়। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]