• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » চমক আসছে আওয়ামী লীগে, বাদ পড়ছেন ডাকসাইটে অনেক নেতা বাড়তে পারে সাংগঠনিক কাঠামো, প্রাধান্য পাবে নারী নেতৃত্ব


চমক আসছে আওয়ামী লীগে, বাদ পড়ছেন ডাকসাইটে অনেক নেতা বাড়তে পারে সাংগঠনিক কাঠামো, প্রাধান্য পাবে নারী নেতৃত্ব

আমাদের নতুন সময় : 07/12/2019

 

সমীরণ রায় : আসন্ন ২০-২১ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনকে সামনে রেখে উৎসব-উদ্দীপনা বেড়েছে নেতাকর্মীদের। যদিও দলটির সিনিয়র নেতারা বলেছেন, ২০২০ সালকে মুজিববর্ষ হিসাবে পালন করা হবে। তাই এবারের জাতীয় সম্মেলন পালন করা হবে সাদামাঠাভাবে।
সম্মেলন আয়োজনে চমক না থাকলেও, নতুন নেতৃত্ব নির্বাচনের ক্ষেত্রে বেশ কিছু চমক থাকবে বলে জানা গেছে। একই সঙ্গে ক্যাসিনো ব্যবসা, টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকা-ের সঙ্গে জড়িত অন্তত ১০জন দলটির কেন্দ্রীয় নেতা বাদ পড়ছেন। পাশাপাশি ৩৩ শতাংশ নারী নেতৃত্বের বিষয়ে আগ্রহ রয়েছে খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার। এছাড়া দলটির কেন্দ্রিয় কমিটির কলেবরও এবার বাড়তে পারে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে।
অপরদিকে, রাজনৈতিক অঙ্গনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পরিবর্তন হচ্ছে কি না? এমন প্রশ্নও রয়েছে। আর পরিবর্তন আসলেও কে আসছেন? যদিও বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বিভিন্ন কর্মকা-ের মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আস্থা অর্জন করেছেন। তারপরেও সাধারণ সম্পাদক পদটিতে একাধিক সিনিয়র নেতার নাম শোনা যাচ্ছে। এরমধ্যে রয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ম-লীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, জাহাঙ্গির কবির নানক, ডা. দিপু মণি, আব্দুর রহমান ও সাংগঠনিক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।
এদিকে, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কাউন্সিলে সভাপতি পদটি ছাড়া অন্য যে কোনো পদেই পরিবর্তন হতে পারে। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা ছাড়া আমরা দলের জন্য অপরিহার্য নই।
জানা গেছে, বয়স্ক, বিতর্কিতদের বাদ দিয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির রদবদলে নারী নেত্রীদের প্রাধান্য বেশি থাকতে পারে। এরই মধ্যে বিভিন্ন পর্যায়ের অনেক নারী নেত্রীর মাঠে রাজনৈতিক অর্জন, নেতাকর্মীদের কাছে জনপ্রিয়তা, স্বচ্ছ ভাবমূর্তি ও কার্যক্রম ইত্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত খোঁজ নেয়া হচ্ছে। সরকারি দলের শীর্ষ নেতা ও গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের মাধ্যমে তাদের সম্পর্কে এসব ‘আমলনামা’ বা প্রতিবেদন সংগ্রহ করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
আওয়ামী লীগের একাধিক শীর্ষ নেতা বলেন, কাউন্সিলের মধ্য দিয়ে বর্তমান কমিটির অর্ধেকের বেশি নেতার পদ-পদবিতে পরিবর্তন আসতে যাচ্ছে। অর্ধেকের মতো নেতা কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে ছিটকে পড়তে পারেন। বিশেষ করে নিষ্ক্রিয়, বিতর্কিত নেতাদের বাদ দিয়ে তরুণ ও পরিচ্ছন্ন ভাবমূর্তির নেতারা স্থান পাবেন নতুন কমিটিতে।
আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ সম্পাদক দেলওয়ার হোসেন বলেন, দলের সভাপতি শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই। তাই এ পদ নিয়ে কোনো কথা নেই। তবে সাধারণ সম্পাদক পদটির বিষয়ে একমাত্র প্রধানমন্ত্রী যে সিদ্ধান্ত দেবেন, সেটিই হবে। আর কেন্দ্রীয় কমিটির অন্য পদগুলোতে রাজনীতিতে দক্ষ, অভিজ্ঞ ও দায়িত্বশীল নেতারা আসুক- এটাই আমরা চাই।
আওয়ামী লীগের সভাপতি ম-লীর সদস্য লেফটেন্যান্ট কর্ণেল (অব.) ফারুক খান বলেন, আওয়ামী লীগের বিগত কমিটিগুলোর তাকালেই বোঝা যায়, দলে নতুন মুখ কিভাবে এসেছে। এবারও নবীন-প্রবীনের সমন্বয়ে কমিটি হবে। সম্পাদনা : মাসুদ কামাল




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]